শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০, ০২:০৮ পূর্বাহ্ন

পূর্বধলায় গৃহবধুকে গলাকেটে হত্যা, সন্ধেহের তীর দেবরের দিকে

শফিকুল আলম শাহীন:
  • আপডেট টাইম : সোমবার, ৫ অক্টোবর, ২০২০, ১১:১২ পূর্বাহ্ন
  • ২২৫০ বার পড়া হয়েছে

নেত্রকোনার পূর্বধলায় লিপি আক্তার (৩৫) নামের গৃহবধুকে নিজ ঘরে গলাকেটে হত্যার প্রকৃত রহস্য উদঘাটন না হলেও সন্ধেহের তীর এগুচ্ছে দেবর রাসেলের দিকে। দেবরের সাথে পরকিয়ায় লিপ্ত হওয়ার এক পর্যায়ে তাদের মধ্যে মনোমালিন্য হওয়ায় দেবর রাসেলই হয়ে উঠেন ভাবীর ঘাতক এমন তথ্য জানাগেছে একটি সূত্রে।



পুলিশও এমন তথ্য একেবারে উড়িয়ে দিচ্ছেন না। ভাবিকে হত্যার পর সে নিজেও গলা কেটে আত্মহত্যার চেষ্ঠা বিষয়টি বাড়ির লোকজনসহ স্থানীয়দের কাছেও অনেকটা পরিস্কার।

লিপির স্বামী আজিজুল জানান, আমার স্ত্রীকে রাসেল প্রায়ই উত্তক্ত করত। এতে সে সাড়া না দেওয়ায় পরিকল্পিতভাবে রাসেলই এ হত্যাকান্ড ঘটিয়েছে। এ ঘটনায় আজ মামলা করব।

অপরদিকে রাসেল পুলিশ হেফাজতে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় টুকরো কাগজে লিখে পুলিশের কাছে হত্যার দায় স্বীকার করেছে বলে অপর একটি সূত্র জানিয়েছে।




এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় কোন মামলা না হওয়ায় তদন্তের স্বার্থে পুলিশ বিষয়টি পরিস্কার না করলেও তাদের সন্ধেহের তীর রাসেলের দিকে।

উল্লেখ্য রবিবার (০৪ অক্টোবর) ভোর রাতে উপজেলা সদরের পূর্বধলা পশ্চিমপাড়া গ্রামের আজিজুল ইসলামের স্ত্রী লিপি আক্তার নামের ওই গৃহবধুকে নিজ ঘরে গলাকেটে হত্যা করা হয়। এ সময় ওই ঘরে গলাকাটা অবস্থায় লিপির চাচাত দেবর রাসেল মিয়াকে বাড়ির লোকজন উদ্ধার করে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করে।
বাড়ির লোকজন জানায়, লিপির স্বামী আজিজুল বিজিবিতে পঞ্চগড়ে কর্মরত।

আলিফ নামের তাদের ১২ বছরের এক ছেলে আছে। লিপি তার ছেলেকে নিয়ে বাড়িতেই থাকেন। ঘটনার দিন রাতে লিপি তার ছেলেকে নিয়ে নিজ ঘরের এক পাশে ও লিপির দেবর আজিজুলের ছোট ভাই সিরাজুল ইসলাম তার স্ত্রীকে নিয়ে একই ঘরের অন্য পাশে ঘুমাচ্ছিলেন।

সিরাজুল জানান, রাত তিনটার দিকে হঠাৎ ঘরে ঘুঙ্গানির শব্দ শুনে তারা জেগে দেখেন ঘরের মেঝেতে লিপি ও রাসেল গলা কাটা অবস্থায় পড়ে আছে। তখন তাদের ডাক চিৎকারে বাড়ির লোকজন এসে আহত দুইজনকে উদ্ধার করে পূর্বধলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে আসলে কর্তব্যরত চিকিৎসক লিপিকে মৃত ঘোষণ করেন ও রাসেলকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন।


লিপির শ্বশুর জালাল উদ্দিন জানান, তার ছেলে আজিজুল প্রায় ১৫ বছর আগে বিজিবিতে যোগদান করেন। এর কিছু দিন পর উপজেলার জারিয়া গ্রামে বিয়ে করেন। তাদের দাম্পত্য জীবন ভালো চললেও গত ৩/৪ বছর ধরে লিপির সঙ্গে রাসেলের পরকিয়ার সম্পর্কের কথা শোনা যাচ্ছিল।

খবর পেয়ে নেত্রকোনা জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) মোহাম্মদ ফখরুজ্জামান জুয়েল পিপিএম, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সদর সার্কেল মোরশেদা খাতুন, পূর্বধলা থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) মোহাম্মদ তাওহীদুর রহমান, পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো. রফিকুল ইসলাম ও ময়মনসিংহ থেকে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) ক্রামই সিন ইউনিটের একটি দল ঘটনাস্থ পরিদর্শন করেন ও ঘটনাস্থল থেকে একটি রক্তমাখা ছুরি (কাগজ কাটার এন্টিকাটার) উদ্ধার করা করেন।


পূর্বধলা থানার অফিসার ইন-চার্জ (ওসি) মোহাম্মদ তাওহীদুর রহমান বলেন, লাশ ময়না তদন্ত শেষে পরিবারেরর কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। নিহতের স্বামী কর্মস্থল থেকে রবিবার রাতে বাড়ি এসেছেন। তিনি বাদী হয়ে আজ মামলা করবেন।

এ জাতীয় আরও সংবাদ
এক ক্লিকে বিভাগের খবর

©২০২০ সর্বস্তত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | পূর্বকন্ঠ
কারিগরি সহযোগিতায়- Shahin প্রয়োজনে: ০১৭১৩৫৭৩৫০২

Notice: Undefined index: config_theme in /home/purbakantho/public_html/wp-content/themes/LatestNews/include/root.php on line 33
themesba-lates1749691102