শুক্রবার, ২৩ অক্টোবর ২০২০, ১২:১৬ অপরাহ্ন

আগুন জ্বলে না বানভাসিদের চুলায়

নিজস্ব প্রতিবেদক:
  • আপডেট টাইম : শনিবার, ২৫ জুলাই, ২০২০, ৫:৪৮ অপরাহ্ন
  • ৭১ বার পড়া হয়েছে

মানিকগঞ্জে সিংগাইর বাদে বাকি ছয় উপজেলা বন্যা কবলিত হয়ে পড়েছে। পদ্মা, যমুনা নদীর পানি কিছুটা কমলেও এখনও বিপৎসীমার ওপর দিয়ে বইছে। বন্যা কবলিত হয়ে প্রায় ৩৫ হাজার বানভাসি পরিবারের ঘরবাড়ির সঙ্গে রান্না ঘরের চুলাও পানিতে তলিয়ে গেছে। চুলায় আগুন না জ্বলায় রান্না করা খাবারের অভাবে শুধু মুড়ি, চিড়া ও গুড় খেয়ে দিনা পার করছেন   বলে জানিয়েছেন এসব এলাকার বানভাসি মানুষ।

সাটুরিয়া উপজেলার ধানকোড়া ইউনিয়নে রুহুলি গ্রামের শবিলু বেগম বলেন, ‘ধলেশ্বরী নদীর পানি বাড়ায় গত ১০ থেকে ১২ দিন আগে আমাদের উঠান, গোয়ালঘর, খড়ের গাদা, উঠানের সবজি, টিউবওয়েল এবং রান্না ঘর তলিয়ে গেছে। রান্নাঘর তলিয়ে যাওয়ায় সবচেয়ে বেশি ভোগান্তিতে রয়েছি। প্রায় দুই সপ্তাহ ধরে পানি থাকায় রান্না ঘরের চুলায় রান্না করা যাচ্ছেনা। শুধু কোন রকম মুড়ি, পেয়াজ, চিড়া, গুড় খেয়ে বেঁচে আছি। এখনও কেউ কোন ত্রাণ বা খাবারের ব্যবস্থা করে দেয়নি।

দৌলতপুর উপজেলার সমেতপুর এলাকার জেসমিন আরা জানান, বন্যার পানিতে ঘরের খাটের নিচে পানি চলে এসেছে। রান্না ঘরের চুলায় পানি উঠায় আগুন না জ্বলায় কোন কিছুই রান্না করা যাচ্ছে না।

ঘিওর উপজেলার বালিয়াখোড়া গ্রামের কামাল মিয়া জানান, ‘বাজারে গিয়ে বাজার করে এনেও সেগুলো খাওয়ার কোন উপায় নেই। বন্যার পানিতে ঘর তলিয়ে যাওয়ায় রান্না বন্ধ হয়ে গেছে। এখন কোন রকম শুকনো খাবার খেয়ে বেঁচে আছি।’

হরিরামপুর উপজেলার আন্ধারমানিক এলাকার সুফিয়া খাতুন বলেন, ‘প্রথম দফায় পানি বাড়লেও চুলা কোন রকম ওপরে তুলে কয়েক দিন রান্না করে পরিবার নিয়ে খেয়েছি। দ্বিতীয় দফায় পানি বাড়তে থাকায় সেই চুলাও তলিয়ে গেছে। এখন তো ঘরে কোন খাবারই নেই।’

জেলা প্রশাসক এস.এম ফেরদৌস জানান, বানভাসি মানুষের মাঝে উপজেলা প্রশাসন ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের মাধ্যমে ১৫০ মেট্রিক টন চাল ও ২ হাজার প্যাকেট শুকনো খাবার, দেড় লাখ টাকার শিশু খাদ্য এবং দেড় লাখ টাকার গোখাদ্য বিতরণ করা হয়েছে। এছাড়া ১০০ মেট্রিক টন জিআর চাল, ৪ লাখ ৫০ হাজার টাকা ক্যাশ, ১ হাজার প্যাকেট শুকনো খাবার, ৫০ হাজার টাকার শিশু খাদ্য এবং ৪ লাখ ৫০ হাজার টাকার গো খাদ্য মজুদ রয়েছে। মজুদ খাবার পর্যায়ক্রমে বানভাসিদের মাঝে বিতরণ করা হবে বলেও জানান তিনি।

মানিকগঞ্জ/সাজেদ

 

Source link

এ জাতীয় আরও সংবাদ
এক ক্লিকে বিভাগের খবর

©২০২০ সর্বস্তত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | পূর্বকন্ঠ
কারিগরি সহযোগিতায়- Shahin প্রয়োজনে: ০১৭১৩৫৭৩৫০২

Notice: Undefined index: config_theme in /home/purbakantho/public_html/wp-content/themes/LatestNews/include/root.php on line 33
themesba-lates1749691102