শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০, ১০:২৪ পূর্বাহ্ন

চৌগাছায় এক্সরে মেশিন ক্রয়ে দুর্নীতি, ধরলেন এমপি

নিজস্ব প্রতিবেদক:
  • আপডেট টাইম : বৃহস্পতিবার, ২ জুলাই, ২০২০, ৬:৪৭ অপরাহ্ন
  • ১১০ বার পড়া হয়েছে

যশোরের চৌগাছা উপজেলার স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স বাংলাদেশের একটি মডেল হাসপাতাল। সেই হাসপাতালকে আরও অত্যাধুনিক করতে একটি পের্টেবল এক্সরে মেশিন কেনা হয়েছে।

তবে তাতে দুর্নীতি হয়েছে এবং সেই দুর্নীতি ধরা পড়েছে ওই এলাকার এমপি বীর মুক্তিযোদ্ধা মেজর জেনারেল (অব.) অধ্যাপক ডাক্তার নাসির উদ্দিনের কাছে।

বৃহস্পতিবার (২ জুলাই) মেশিনটি উদ্বোধন করতে গিয়ে বিষয়টি তার নজরে আসে। সাথে সাথে তিনি নির্বাহী কর্মকর্তা জাহিদুল ইসলামকে তদন্ত পূর্বক ব্যস্থা গ্রহণের নির্দেশ দেন।

এমপি ডাক্তার নাসির উদ্দিন বলেন, ‘‘একজন ডাক্তার হিসেবে এসব মেশিন আমার পূর্ব পরিচিত। মেশিনটি মোটেও নতুন নয়। একটি পুরাতন মেশিনকে রং করে সরবরাহ করা হয়েছে। হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ মেশিনটি কীভাবে বুঝে নিলেন?

‘দুর্নীতিকে কোনো অবস্থাতেই ছাড় দেওয়া হবে না। দুর্নীতি যেই করুক বা তার পরিচয় যাই হোক না কেনো- কোনো ছাড় নেই। এটিই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নির্দেশ।”

উপজেলা চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ ড. মোস্তানিছুর রহমান জানান, পোর্টেবল এক্সরে মেশিনটি কিনতে ২০১৯-২০ অর্থ বছরের এডিডির বরাদ্দ থেকে সাড়ে তিন লাখ টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়েছিল।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাহিদুল ইসলাম বলেন, ‘কীভাবে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ এক্সরে মেশিনটি বুঝে নিলেন তা আমার মাথায় আসছে না। শুধু তাই না, উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা তিনি কীভাবে সরবরাহকারি প্রতিষ্ঠানকে প্রত্যয়পত্র দিলেন সেটিও আমার বোধগম্য নয়।’

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা বলেন, ‘বিষয়টিতে আমি খুবই আপসেট। আমার স্টোরকিপার আর এক্সরে অপারেটর দুজনেই বললেন এক্সরে মেশিনটি ঠিক আছে। তাদের কথার ভিত্তিতে আমি প্রত্যয়ন দেই। তবে মেশিনটি আমার দেখা উচিৎ ছিলো। ভুল হয়ে গেছে।’

হাসপাতালের স্টোরকিপার ইমরান বলেন, ‘সরবারহকারি প্রতিষ্ঠান আরকে এন্টার প্রাইজের মালিক কবির আমাদেরকে কোনো কাগজপত্র দেননি। এক্সরে মেশিনটি আমি বুঝেও নিইনি।’

সরবরাহকারি প্রতিষ্ঠান আরকে এন্টাপ্রাইজের মালিক কবির বলেন, ‘নতুন এই মেশিনের দাম ১৫ লাখ টাকা। এডিবির বরাদ্দকৃত টাকাতে এই মেশিন ক্রয় সম্ভব না। সেজন‌্য পুরনো মেশিন দেওয়া হয়েছে।’

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাহিদুল ইসলাম আরও বলেন, ‘সরবরাহকারি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান আরকে এন্টারপ্রাইজের মালিক কবিরকে আমি বলেছি, আজকের মধ্যে মেশিনের সম্পূর্ণ টাকা সরকারি কোষাগারে ফেরৎ দিতে। তিনি রাজি হয়েছেন।’

রিটন/সনি

 

Source link

এ জাতীয় আরও সংবাদ
এক ক্লিকে বিভাগের খবর

©২০২০ সর্বস্তত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত | পূর্বকন্ঠ
কারিগরি সহযোগিতায়- Shahin প্রয়োজনে: ০১৭১৩৫৭৩৫০২

Notice: Undefined index: config_theme in /home/purbakantho/public_html/wp-content/themes/LatestNews/include/root.php on line 33
themesba-lates1749691102