বুধবার ২৭শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১১ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

স্মৃতির পাতায় ডাঃ আব্দুল হামিদ খান

মোঃ আলী আমজাদ:  |  আপডেট ৭:০১ অপরাহ্ণ | বুধবার, ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০ | প্রিন্ট  | 172

স্মৃতির পাতায় ডাঃ আব্দুল হামিদ খান

ডাঃ এম.এ.হামিদ খান। ১৯৩৩ সালের ১ মার্চ বাবা আলী নেওয়াজ খানের মুখে হাসি ফুটিয়ে, মা জাহেদা খাতুনের কোল উজ্জ্বল করে পূর্বধলা উপজেলার মাথাং গ্রামে এক সম্ভ্রান্ত মুসলিম পরিবারে জন্ম গ্রহণ করেন। তখন প্রত্যান্ত গ্রাম অঞ্চলে শিক্ষার কোন পরিবেশ ছিল না বললেই চলে।

 


এহেন অবস্থায় শত প্রতিকূলতা উপেক্ষা করে তিনি প্রাথমিক, মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়ে ঢাকা কলেজে ভর্তি হন। ১৯৫২ সালে তিনি মেডিকেলে দ্বিতীয় বর্ষের ছাত্র। তখন তিনি সরাসরি ভাষা আন্দোলনে অংশ গ্রহণ করেন। তৎসময় পাকিস্তান সরকার তার বিরুদ্ধে হুলিয়া জারি করেন। তিনি চলে আসেন নেত্রকোণায় এবং ছাত্র আন্দোলনকে বেগবান করতে বলিষ্ঠ ভূমিকা পালন করেন। সে অনেক কথা। পরবর্তী সময় তিনি এম.বি.এস পাশ করে সরকারি চাকুরীর কোন চেষ্ঠাই করেননি। তিনি নেত্রকোণা শহরের কলেজ রোড সাতপাই বাসা করেন এবং আমৃত্যু নেত্রকোণার মানুষদের চিকিৎসা সেবা প্রদান করে যান।

 

১৯৭১ সাল। বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমানের আহŸানে সারা বাংলাদেশে প্রচন্ড মুক্তিযুদ্ধ চলতেছিলো। এই সময়টিতে ডাঃ এম. এ. হামিদ খান গোপনে মুক্তিযুদ্ধাদের চিকিৎসা সেবা প্রদান করেন এবং মুক্তিযুদ্ধাদের উৎসাহ বর্ধনে বিশেষ সহায়কের ভূমিকা পালন করেন। স্বাধীনতা অর্জনের পরবর্তী দীর্ঘ সময় তিনি সরকারের বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডে নিজেকে সম্পৃৃক্ত করেন। নেত্রকোণা এলাকার পিছিয়ে পড়া জনগোষ্ঠীর উন্নয়নে সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে উনার ভূমিকা ছিল প্রশংসনীয়। তিনি ডায়েবেটিক সমিতির প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, শহর সমাজসেবা কার্যালয়, নেত্রকোণা কর্তৃক পরিচালিত সমন্বয় পরিষদের প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি, নারী নির্যাতন প্রতিরোধ কমিটির সভাপতি ও নেত্রকোণা জেলা প্রেসক্লাবের আজীবন সদস্যসহ অনেক গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেছেন। তার নিষ্ঠা ও সততা সর্বজনন স্বীকৃত ।

 

এই নেত্রকোণা শহরে ছোট বড়, শিক্ষিত অশিক্ষিত সকল শ্রেণী পেশার মানুষের সাথে তার ছিল মধুর সম্পর্ক। শোকে-দুঃখে ভালো-মন্দে সবাই স্মরণাপণ্য হতেন এই প্রবীণ ডাক্তার এম. এ. হামিদ খানের কাছে। তিনি সবাইকে সৎ পরামর্শ দিতেন। কোনো সভা সেমিনারে আমাকে পেয়ে তিনি খুব খুশি হতেন। বলতেন আমজাদ তুমি একবার আমার বাসায় আসো। “সমাজসেবা মূলক কর্মকান্ডে তিনি আমাকে উৎসাহ উদ্দীপনা দিতেন। তিনি যে এতো তাড়াতাড়ি আমাদের ছেড়ে চলেন যাবেন ভাবতে পারিনি। ”গত ২৭ শে ডিসেম্বর, ২০১৯ অপত্যাশিতভাবে তিনি ও চেম্বার অব কমার্সের সভাপতি জনাব আব্দুল ওয়াহেদ সাহেবকে নিয়ে আমার বাসায় আসেন। অল্প সময়ের মধ্যে অনেক কথা হলো।

 

২৫ জানুয়ারি, ২০২০ সকালে উনার মৃত্যু সংবাদ শুনলাম। চেম্বারে এসে বসলাম। অনেকেই বলাবলি করতেছিলো ডাক্তার হামিদ সাব মারা গেছেন। আমার খুব কষ্ট হইতেছিলো। নেত্রকোণা স্টেডিয়াম মাঠে উপস্থিত হলাম। দেখলাম সাদা কাফনের কাপড়ে পেছানো মরদেহ। খুব শান্ত হয়ে ঘুমিয়ে আছেন। আজ আর হাস্যউজ্জ্বল মুখে বলেননি, “আমজাদ, তুমি কেমন আছো?” মরদেহ সামনে রেখে জেলা প্রশাসক মঈনউল ইসলাম সাহেব, এস.পি মো: আলী আকবর মুন্সী সাহেব, জেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি মতিউর রহমান খান, পৌর মেয়র নজরুল ইসলাম খান, আব্দুল ওয়াহেদ সাহেব ও ছায়েদুর রহমান সাহেবসহ অনেকেই ভারাক্রান্ত হৃদয়ে কথা বলেন। সারা মাঠ পিন পতন নিরবতা।

 

এবার আপন আলয়ে যাবার পালা। মরদেহ গাড়িতে উঠানো হলো। শহরের গলি পেরিয়ে হিরণপুরের দক্ষিণ দিকের পাকা রাস্তা দিয়ে ধীরে ধীরে গাড়ি চলছে। মাথাং নিজ গ্রামে মরদেহ পৌঁছা মাত্রই এলাকার হাজার হাজার মানুষ তাকে শেষ বিদায় জানাতে দন্ডায়মান। দ্বিতীয় জানাজা শেষে চিরনিদ্রায় শায়িত হলেন মা-বাবার কবরের পাশে এই জগত সংসার এমনই। তিনি এক ছেলে সন্তান ও তিন কন্যা সন্তানের জনক। আমাদের চারপাশে কতো ¯েœহ-প্রীতি, মায়া-মমতায়ঘেরা কিন্তু আমাদের বুঝে আসেনা, আমাদের চারপাশ প্রয়োজনে কতো নিষ্ঠুর আর নির্দয় হতে পারে।

 

একদিন আমাদেরকে চিরবিদায় নিতে হবে। সেদিন পথ-ঘাট, রাস্তা-রেস্তুরায় মানুষের আগমনের কমতি হবেনা। শুধু পড়বে না মোদের পদচিহ্ন। নিয়তি আর মৃত্যুর কাছে আমরা সবাই অসহায়। ডাঃ আব্দুল হামিদ খান আজ আমাদের মাঝে নেই। আমরা তাঁর জন্য কি বা করতে পারি? সবশেষে মহান আল্লাহর দরবারে প্রার্থনা করি এই মহান ব্যক্তিকে মহান আল্লাহ যেন জান্নাতের সর্বোচ্চ স্থানে অর্পিত করেন।

“লেখক- সম্পাদক, সাপ্তাহিক কৃষকের বাণী, নেত্রকোণা।
কার্যকরী সভাপতি, নেত্রকোনা অনলাইন রিপোর্টার্স ক্লাব ”

শেয়ার করুন..

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

এক ক্লিকে বিভাগের খবর

এ বিভাগের আরও খবর

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১  
ঘোষনা : আমাদের পূর্বকন্ঠ ওয়েবসাইটে প্রবেশ করার জন্য আপনাকে স্বাগতম। আপনার আশপাশে ঘটে যাওয়া খবরা খবর জানাতে আমাদের ফোন করুন-০১৭১৩৫৭৩৫০২ এই নাম্বারে ☎ গুরুত্বপূর্ণ নাম্বার সমূহ : ☎ জরুরী সেবা : ৯৯৯ ☎ নেত্রকোনা ফায়ার স্টেশন: ০১৭৮৯৭৪৪২১২☎ জেলা প্রশাসক ,নেত্রকোনা:০১৩১৮-২৫১৪০১ ☎ পুলিশ সুপার,নেত্রকোনা: ০১৩২০১০৪১০০☎ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, সদর সার্কেল : ০১৩২০১০৪১৪৫ ☎ ইউএনও,পূর্বধলা : ০১৭৯৩৭৬২১০৮☎ ওসি পূর্বধলা : ০১৩২০১০৪৩১৫ ☎ শ্যামগঞ্জ পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র : ০১৩২০১০৪৩৩৩ ☎ ওসি শ্যামগঞ্জ হাইওয়ে থানা : ০১৩২০১৮২৮২৬ ☎ উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা, পূর্বধলা: ০১৭০০৭১৭২১২/০৯৫৩২৫৬১০৬ ☎ উপজেলা সমাজসেবা অফিসার, পূর্বধলা : ০১৭১৮৩৮৭৫৮৭/০১৭০৮৪১৫০২২ ☎ উপজেলা মৎস্য অফিসার, পূর্বধলা : ০১৫১৫-৬১৪৯২১ ☎ উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা, পূর্বধলা : ০১৯৯০-৭০৩০২০ ☎ উপজেলা প্রাণি সম্পদ অফিসার, পূর্বধলা : ০১৭১৮-৭২৮২৯৪ ☎ উপজেলা প্রকৌশলী (এলজিইডি) পূর্বধলা :০১৭০৮-১৬১৪৫৭ ☎ উপজেলা আনসার ভিডিপি অফিসার, পূর্বধলা : ০১৯১৪-৯১৯৯৩৮ ☎ উপ-সহকারি প্রকৌশলী, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অফিস, পূর্বধলা : ০১৯১৬-৮২৬৬৬৮ ☎ উপজেলা যুব উন্নয়ন অফিসার, পূর্বধলা : ০১৭১১-৭৮৯৭৯৮ ☎ উপজেলা কৃষি অফিসার, পূর্বধলা : ০১৭১৬-৭৯৮৯৪৬ ☎ উপজেলা শিক্ষা অফিসার, পূর্বধলা : ০১৭১৫-৪৭৪২৯৬ ☎ উপজেলা সমবায় অফিসার, পূর্বধলা : ০১৭১৭-০৪৩৬৩৯ ☎ সম্পাদক পূর্বকন্ঠ ☎ ০১৭১৩৫৭৩৫০২ ☎
মোঃ শফিকুল আলম শাহীন সম্পাদক ও প্রকাশক
পূর্বকণ্ঠ ২০১৬ সালে তথ্য অধিদপ্তরে নিবন্ধনের জন্য আবেদিত।
বার্তা ও সম্পাদকীয় কার্যালয়

স্টেশন রোড, পূর্বধলা, নেত্রকোনা।

হেল্প লাইনঃ +৮৮০৯৬৯৬৭৭৩৫০২

E-mail: info@purbakantho.com