নেত্রকোনা ০৩:৩৩ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

‘শান্তিপূর্ণ সমাধান না হলে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে জাতিসংঘে অভিযোগ’

  • আপডেট : ০৭:০৫:০০ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২২
  • ১০১৫ বার পঠিত

ঢাকা: মিয়ানমারের যুদ্ধ বিমান থেকে বাংলাদেশে ছোঁড়া গোলার বিষয়ে শান্তিপূর্ণ সমাধান চায় বাংলাদেশ। যদি যথোপযুক্ত জবাব এবং শান্তিপূর্ণ সমাধানে না আসে তাহলে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে জাতিসংঘে অভিযোগ যাবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।


তিনি বলেছেন, আমরা বিষয়টি নিয়ে মিয়ানমারের সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করছি। আশা করছি তারা জবাব দেবে। না হলে ইউএনএ কথা বলা হবে। সোমবার (১৮ সেপ্টেম্বর) সচিবালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

আসাদুজ্জামান খান কামালা বলেন, ‘মিয়ানমার যা করছে তার ভেতরে কাহিনী আছে।’ কি কাহিনী থাকতে পারে? এ বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, ‘মিয়ানমারের বিভিন্ন সীমান্তে বিদ্রোহীদের সঙ্গে যুদ্ধ লেগে আছে সেটা সকলেই জানেন। সেই যুদ্ধের গোলা এবার আমাদের সীমান্তের ভেতরে চলে এসেছে। তিনটি গোলা এসে পড়েছে বান্দরবান সীমান্তে। এর মধ্যে দু’টি বিস্ফোরণ হলে একজন নিহত এবং কয়েকজন আহত হন।’

তিনি বলেন, ‘ইতোমধ্যে বিজিবি এর প্রতিবাদ জানিয়েছে। বাংলাদেশে নিযুক্ত মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূতকে ডাকা হয়েছে। বিষয়টি প্রধানমন্ত্রীও অবগত আছেন। এভাবে প্রতিনিয়ত ঘটতে থাকলে তো সমস্যা। আমরা বিষয়টির শান্তিপূর্ণ সমাধান চাই। প্রাথমিক ধাপ শেষ হচ্ছে। দ্বিতীয় ধাপে আমরা জাতিসংঘে যাব। সেখানে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হবে।’

এর আগে, দুপুরে মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূত উ অং কিয়াউ মোকে তলব করে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। তাকে ডেকে এনে কড়া প্রতিবাদ জানান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া উইংয়ের মহাপরিচালক নাজমুল হুদা। এ সময় তার কাছে কড়া ভাষায় লেখা প্রতিবাদ পত্র তুলে দেওয়া হয়। এ নিয়ে এক মাসের মধ্যে চতুর্থবারের মতো তলব করা হলো সামরিক জান্তাশাসিত দেশটির রাষ্ট্রদূতকে।,

উল্লেখ্য, সম্প্রতি মিয়ানমারের যুদ্ধ বিমান থেকে ছোড়া তিনটি মর্টারের গোলা এসে বাংলাদশের বান্দরবানের নাইক্ষংছড়ি সীমান্তে পড়ে। এতে একজন নিহত হন। আহত হন বেশ কয়েকজন। রাখাইনে বিদ্রোহী গোষ্ঠীর সঙ্গে সরকারি বাহিনীর সংঘাতের ধারাবাহিকতায়ই এমন ঘটনা ঘটছে বলে ইঙ্গিত দিয়েছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। এসব কিছু মাথায় রেখেই সীমান্তে সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি করে রেখেছে বাংলাদেশ।,

from  Sarabangla https://ift.tt/LPihJKc

আপনার মন্তব্য লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষণ করুন

প্রকাশক ও সম্পাদক সম্পর্কে-

শফিকুল আলম শাহীন

আমি একজন ওয়েব ডেভেলপার ও সাংবাদিক। আমি দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকায় পূর্বধলা উপজেলা সংবাদদাতা হিসেবে কর্মরত । সেইসাথে পূর্বকণ্ঠ অনলাইন প্রকাশনার সম্পাদক ও প্রকাশক। আমার বর্তমান ঠিকানা স্টেশন রোড, পূর্বধলা, নেত্রকোনা। আমি জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে ইতিবাচক। আমার ধর্ম ইসলাম। আমি করতে, দেখতে এবং অভিজ্ঞতা করতে পছন্দ করি এমন অনেক কিছু আছে। আমি আইটি সেক্টর নিয়ে বিভিন্ন এক্সপেরিমেন্ট করতে পছন্দ করি। যেমন ওয়েব পেজ তৈরি করা, বিভিন্ন অ্যাপ তৈরি করা, রেডিও স্টেশন তৈরি করা, অনলাইন সংবাদপত্র তৈরি করা ইত্যাদি। আমার সম্পাদনায় প্রকাশিত পূর্বকন্ঠ পত্রিকাটি স্বাধীনতার চেতনায় একটি নিরপেক্ষ জাতীয় অনলাইন । পাঠক আমাদের সবচেয়ে বড় অনুপ্রেরনা। পূর্বকণ্ঠ কথা বলে বাঙালির আত্মপ্রত্যয়ী আহ্বান ও ত্যাগে অর্জিত স্বাধীনতার। কথা বলে স্বাধীনতার চেতনায় উদ্বুদ্ধ হতে। ছড়িয়ে দিতে এ চেতনা দেশের প্রত্যেক কোণে কোণে। আমরা রাষ্ট্রের আইন কানুন, রীতিনীতির প্রতি শ্রদ্ধাশীল। দেশপ্রেম ও রাষ্ট্রীয় আইন বিরোধী এবং বাঙ্গালীর আবহমান কালের সামাজিক সহনশীলতার বিপক্ষে পূর্বকন্ঠ কখনো সংবাদ প্রকাশ করে না। আমরা সকল ধর্মমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল, কোন ধর্মমত বা তাদের অনুসারীদের অনুভূতিতে আঘাত দিয়ে আমরা কিছু প্রকাশ করি না। আমাদের সকল প্রচেষ্টা পাঠকের সংবাদ চাহিদাকে কেন্দ্র করে। তাই পাঠকের যে কোনো মতামত আমরা সাদরে গ্রহন করব। প্রয়োজনে: ০১৭১৩৫৭৩৫০২

‘শান্তিপূর্ণ সমাধান না হলে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে জাতিসংঘে অভিযোগ’

আপডেট : ০৭:০৫:০০ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০২২

ঢাকা: মিয়ানমারের যুদ্ধ বিমান থেকে বাংলাদেশে ছোঁড়া গোলার বিষয়ে শান্তিপূর্ণ সমাধান চায় বাংলাদেশ। যদি যথোপযুক্ত জবাব এবং শান্তিপূর্ণ সমাধানে না আসে তাহলে মিয়ানমারের বিরুদ্ধে জাতিসংঘে অভিযোগ যাবে বলে জানিয়েছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।


তিনি বলেছেন, আমরা বিষয়টি নিয়ে মিয়ানমারের সঙ্গে কথা বলার চেষ্টা করছি। আশা করছি তারা জবাব দেবে। না হলে ইউএনএ কথা বলা হবে। সোমবার (১৮ সেপ্টেম্বর) সচিবালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

আসাদুজ্জামান খান কামালা বলেন, ‘মিয়ানমার যা করছে তার ভেতরে কাহিনী আছে।’ কি কাহিনী থাকতে পারে? এ বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, ‘মিয়ানমারের বিভিন্ন সীমান্তে বিদ্রোহীদের সঙ্গে যুদ্ধ লেগে আছে সেটা সকলেই জানেন। সেই যুদ্ধের গোলা এবার আমাদের সীমান্তের ভেতরে চলে এসেছে। তিনটি গোলা এসে পড়েছে বান্দরবান সীমান্তে। এর মধ্যে দু’টি বিস্ফোরণ হলে একজন নিহত এবং কয়েকজন আহত হন।’

তিনি বলেন, ‘ইতোমধ্যে বিজিবি এর প্রতিবাদ জানিয়েছে। বাংলাদেশে নিযুক্ত মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূতকে ডাকা হয়েছে। বিষয়টি প্রধানমন্ত্রীও অবগত আছেন। এভাবে প্রতিনিয়ত ঘটতে থাকলে তো সমস্যা। আমরা বিষয়টির শান্তিপূর্ণ সমাধান চাই। প্রাথমিক ধাপ শেষ হচ্ছে। দ্বিতীয় ধাপে আমরা জাতিসংঘে যাব। সেখানে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হবে।’

এর আগে, দুপুরে মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূত উ অং কিয়াউ মোকে তলব করে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। তাকে ডেকে এনে কড়া প্রতিবাদ জানান পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া উইংয়ের মহাপরিচালক নাজমুল হুদা। এ সময় তার কাছে কড়া ভাষায় লেখা প্রতিবাদ পত্র তুলে দেওয়া হয়। এ নিয়ে এক মাসের মধ্যে চতুর্থবারের মতো তলব করা হলো সামরিক জান্তাশাসিত দেশটির রাষ্ট্রদূতকে।,

উল্লেখ্য, সম্প্রতি মিয়ানমারের যুদ্ধ বিমান থেকে ছোড়া তিনটি মর্টারের গোলা এসে বাংলাদশের বান্দরবানের নাইক্ষংছড়ি সীমান্তে পড়ে। এতে একজন নিহত হন। আহত হন বেশ কয়েকজন। রাখাইনে বিদ্রোহী গোষ্ঠীর সঙ্গে সরকারি বাহিনীর সংঘাতের ধারাবাহিকতায়ই এমন ঘটনা ঘটছে বলে ইঙ্গিত দিয়েছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। এসব কিছু মাথায় রেখেই সীমান্তে সর্বোচ্চ সতর্কতা জারি করে রেখেছে বাংলাদেশ।,

from  Sarabangla https://ift.tt/LPihJKc