নেত্রকোনা ০৭:২৯ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৮ মে ২০২৪, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

মোহনগঞ্জে কৃষি প্রশিক্ষন ইনস্টিটিউটের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন

  • আপডেট : ০৯:৪৪:২৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ৪ নভেম্বর ২০২৩
  • ১১৬

এস,এম, সারোয়ার খোকন,মোহনগঞ্জ : নেত্রকোনার মোহনগঞ্জ উপজেলার আদর্শ নগরে কৃষি প্রশিক্ষন ইনিস্টিটিউট স্থাপন প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয়েছে। শনিবার দুপুরে ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন নেত্রকোনা -৪ আসনের এমপি সাজ্জাদুল হাসান। ডিঙ্গাপোতা হাওর পাড়ে সুয়াইর ইউনিয়নের জনদপুর মৌজায় কুষি প্রশিক্ষন ইনিস্টিটিউট এটিআই প্রতিষ্ঠানটি বাস্তবায়ন করছে কষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর।

এ উপলক্ষে প্রকল্প প্রাঙ্গনে এক আলোচনা সভা অনুষ্টিত হয়। এতে প্রধানঅতিথি ছিলেন সাজ্জাদুল হাসান এমপি। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের পরিচালক মোঃ আশরাফ উদ্দিনের সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন,অতিরিক্ত সচিব ড.শাহ মোঃ হেলালউদ্দিন, জেলা প্রশাসক শাহেদ পারভেজ, উপ পরিচালক মোহাম্মদ নূরুজ্জামান, এটি আই প্রকল্প পরিচালক ড. মোঃ শরিফুল ইসলাম, মোহনগঞ্জ পৌর মেয়র লতিফুর রহমান রতন,সুয়াইর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান কামরুল হাসান সেলিম প্রমুখ।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোঃ আব্দুশ শাকুর সাদী জানান, এই প্রকল্পে উপজেলার জনদপুর মৌজায় ১৪.৯৫ একর ভূমি অধিগ্রহন করা হয়েছে। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের সূত্রে জানা গেছে,প্রতি বছর প্রতিটি এটিআই এর মাধ্যমে ২০০জন ছাত্র/ছাত্রীর ভর্তির সুবিধা পাবে। উক্ত প্রকল্পের মাধ্যমে স্থাপিত এটি আইএর মাধ্যমে প্রতিবছর ৪০০জন ডিপ্লোমা কৃষিবিদ ডিগ্রী লাভ করবে। যার মাধ্যমে তারা বিভিন্ন সরকারি, বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরীর সুযোগ পাবে।

তাছাড়া প্রশিক্ষনে অংশগ্রহনকারী ১৫০০জন কৃষক সরাসরি প্রকল্পের সুবিধাভোগী। প্রকল্প কার্যক্রম বাস্তবায়নের ফলে উক্ত এলাকাসমূহে সামগ্রীক কৃষি উৎপাদন উল্লেখ যোগ্যহারে বৃদ্ধি পাবে। যা প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে প্রকল্প এলাকার কৃষি উৎপাদন ও ভোগের সাথে যোগ হবে। তাছাড়া কৃষি প্রশিক্ষন ইনিস্টিটিউট এর আশপাশে আরো ছোট ছোট প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠবে যাতে নতুন নতুন কর্মসংস্থান সুষ্টি হবে যা পুরো প্রকল্প এলাকায় প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে আর্থ সামাজিক উন্নয়নে ভূমিকা রাখবে।

আপনার মন্তব্য লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষণ করুন

প্রকাশক ও সম্পাদক সম্পর্কে-

আমি মো. শফিকুল আলম শাহীন। আমি একজন ওয়েব ডেভেলপার ও সাংবাদিক । আমি পূর্বকণ্ঠ অনলাইন প্রকাশনার সম্পাদক ও প্রকাশক। আমি জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে ইতিবাচক। আমি করতে, দেখতে এবং অভিজ্ঞতা করতে পছন্দ করি এমন অনেক কিছু আছে। আমি আইটি সেক্টর নিয়ে বিভিন্ন এক্সপেরিমেন্ট করতে পছন্দ করি। যেমন ওয়েব পেজ তৈরি করা, বিভিন্ন অ্যাপ তৈরি করা, অনলাইন রেডিও স্টেশন তৈরি করা, অনলাইন সংবাদপত্র তৈরি করা ইত্যাদি।

পূর্বধলায় জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা সপ্তাহ পালিত

মোহনগঞ্জে কৃষি প্রশিক্ষন ইনস্টিটিউটের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন

আপডেট : ০৯:৪৪:২৬ অপরাহ্ন, শনিবার, ৪ নভেম্বর ২০২৩

এস,এম, সারোয়ার খোকন,মোহনগঞ্জ : নেত্রকোনার মোহনগঞ্জ উপজেলার আদর্শ নগরে কৃষি প্রশিক্ষন ইনিস্টিটিউট স্থাপন প্রকল্পের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করা হয়েছে। শনিবার দুপুরে ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করেন নেত্রকোনা -৪ আসনের এমপি সাজ্জাদুল হাসান। ডিঙ্গাপোতা হাওর পাড়ে সুয়াইর ইউনিয়নের জনদপুর মৌজায় কুষি প্রশিক্ষন ইনিস্টিটিউট এটিআই প্রতিষ্ঠানটি বাস্তবায়ন করছে কষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর।

এ উপলক্ষে প্রকল্প প্রাঙ্গনে এক আলোচনা সভা অনুষ্টিত হয়। এতে প্রধানঅতিথি ছিলেন সাজ্জাদুল হাসান এমপি। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের পরিচালক মোঃ আশরাফ উদ্দিনের সভাপতিত্বে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন,অতিরিক্ত সচিব ড.শাহ মোঃ হেলালউদ্দিন, জেলা প্রশাসক শাহেদ পারভেজ, উপ পরিচালক মোহাম্মদ নূরুজ্জামান, এটি আই প্রকল্প পরিচালক ড. মোঃ শরিফুল ইসলাম, মোহনগঞ্জ পৌর মেয়র লতিফুর রহমান রতন,সুয়াইর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান কামরুল হাসান সেলিম প্রমুখ।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মোঃ আব্দুশ শাকুর সাদী জানান, এই প্রকল্পে উপজেলার জনদপুর মৌজায় ১৪.৯৫ একর ভূমি অধিগ্রহন করা হয়েছে। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের সূত্রে জানা গেছে,প্রতি বছর প্রতিটি এটিআই এর মাধ্যমে ২০০জন ছাত্র/ছাত্রীর ভর্তির সুবিধা পাবে। উক্ত প্রকল্পের মাধ্যমে স্থাপিত এটি আইএর মাধ্যমে প্রতিবছর ৪০০জন ডিপ্লোমা কৃষিবিদ ডিগ্রী লাভ করবে। যার মাধ্যমে তারা বিভিন্ন সরকারি, বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে চাকরীর সুযোগ পাবে।

তাছাড়া প্রশিক্ষনে অংশগ্রহনকারী ১৫০০জন কৃষক সরাসরি প্রকল্পের সুবিধাভোগী। প্রকল্প কার্যক্রম বাস্তবায়নের ফলে উক্ত এলাকাসমূহে সামগ্রীক কৃষি উৎপাদন উল্লেখ যোগ্যহারে বৃদ্ধি পাবে। যা প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে প্রকল্প এলাকার কৃষি উৎপাদন ও ভোগের সাথে যোগ হবে। তাছাড়া কৃষি প্রশিক্ষন ইনিস্টিটিউট এর আশপাশে আরো ছোট ছোট প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠবে যাতে নতুন নতুন কর্মসংস্থান সুষ্টি হবে যা পুরো প্রকল্প এলাকায় প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষভাবে আর্থ সামাজিক উন্নয়নে ভূমিকা রাখবে।