নেত্রকোনা ০৮:২৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার হত্যা,আচার্য বরাবর রাবি শিক্ষার্থীদের খোলা চিঠি

  • আপডেট : ০৩:১৯:৩৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৩ অক্টোবর ২০১৯
  • ১২০৯ বার পঠিত

মেহেদী হাসান,রাবি সংবাদদাতা:

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার হত্যার বিচার দাবিতে চতুর্থ দিনের মতো ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ করেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) শিক্ষার্থীরা। রবিবার সকাল ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে ‘সন্ত্রাস ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়’ ব্যানারে এ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়।

কর্মসূচি থেকে শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য ও রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ বরাবর একটি খোলা চিঠি পেশ করেন। চিঠিতে শিক্ষার্থীরা উল্লেখ করেন, ‘বর্তমানে বাংলাদেশের একটি চরম অগণতান্ত্রিক ও স্বৈরতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থা চলমান। যেখানে মানুষের ন্যূনতম মত প্রকাশের স্বাধীনতা ও জীবনের নিরাপত্তা নেই। সরকার দলীয় সন্ত্রাস ও দুর্নীতি দেশে একটি বিভৎস অরাজক অবস্থার সৃষ্টি করেছে।

সামগ্রিক এই অস্থিরতার করাল গ্রাসে দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোও আক্রান্ত। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের স্বৈরতান্ত্রিক আচরণ, দুর্নীতি, নিয়োগ বাণিজ্য ও ছাত্রলীগের সন্ত্রাসী কর্মকাÐ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার স্বাভাবিক পরিবেশকে ব্যহত করছে। সাম্প্রতিক সময়ে ছাত্রলীগ কর্তৃক বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার হত্যাকাÐ ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভিসির ‘জয় হিন্দ’ বক্তব্য এবং প্রো-ভিসির শিক্ষক নিয়োগ সংক্রান্ত অবৈধ আর্থিক লেনদেনের ফোনালাপ বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে চলমান সন্ত্রাস ও দুর্নীতির নগ্ন চিত্র তুলে ধরেছে। এমতাবস্থায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার সুষ্ঠু ও গণতান্ত্রিক পরিবেশ নিশ্চিত করার জন্য নি¤েœাক্ত দাবিতে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন গড়ে তোলা আমাদের আশু কর্তব্য।’

চিঠিতে শিক্ষার্থীরা কয়েকটি দাবির কথা উল্লেখ করেন। উল্লেখযোগ্য দাবিগুলো হলো- আবরারের হত্যাকারীদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করা, বিভিন্ন সময়ে সংগঠিত শিক্ষক-শিক্ষার্থী হত্যা ও নির্যাতনের বিচার করা, দুর্নীতিগ্রস্ত-জালিয়াত-সন্ত্রাসী তোষণকারী ভিসি, প্রো-ভিসি’র অপসারণ এবং পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে স্বায়ত্ত¡শাসন নিশ্চিত করা, সন্ত্রাস ও দখলদারিত্বমুক্ত গণতান্ত্রিক শিক্ষাঙ্গন নিশ্চিতে দ্রæত রাকসু নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা, আবাসিক হলে ছাত্রলীগের সিট বাণিজ্য, পলিটিক্যাল বøক ও ছাত্র নির্যাতন বন্ধ করা, প্রশাসনের তত্ত¡াবধানে শিক্ষার্থীদের সিটের ব্যবস্থা করা, গবেষণা খাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাজেটে পর্যাপ্ত বরাদ্দসহ মেধার মূল্যায়নের ভিত্তিতে শিক্ষক নিয়োগ নিশ্চিতে ১৯৭৩’র অধ্যাদেশ যুগোপযোগী করা, ভারতের সঙ্গে সম্পাদিত অসম চুক্তিগুলো বাতিল করা।

রাবি শিক্ষার্থী রিদম শাহরিয়ারের সঞ্চালনায় বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য দেন মহব্বত হোসেন মিলন, রঞ্জু হাসান, শাকিল আহমেদ, মো. ইসরাফিল প্রমুখ।

আপনার মন্তব্য লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষণ করুন

প্রকাশক ও সম্পাদক সম্পর্কে-

শফিকুল আলম শাহীন

আমি একজন ওয়েব ডেভেলপার ও সাংবাদিক। আমি দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকায় পূর্বধলা উপজেলা সংবাদদাতা হিসেবে কর্মরত । সেইসাথে পূর্বকণ্ঠ অনলাইন প্রকাশনার সম্পাদক ও প্রকাশক। আমার বর্তমান ঠিকানা স্টেশন রোড, পূর্বধলা, নেত্রকোনা। আমি জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে ইতিবাচক। আমার ধর্ম ইসলাম। আমি করতে, দেখতে এবং অভিজ্ঞতা করতে পছন্দ করি এমন অনেক কিছু আছে। আমি আইটি সেক্টর নিয়ে বিভিন্ন এক্সপেরিমেন্ট করতে পছন্দ করি। যেমন ওয়েব পেজ তৈরি করা, বিভিন্ন অ্যাপ তৈরি করা, রেডিও স্টেশন তৈরি করা, অনলাইন সংবাদপত্র তৈরি করা ইত্যাদি। প্রয়োজনে: ০১৭১৩৫৭৩৫০২

বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার হত্যা,আচার্য বরাবর রাবি শিক্ষার্থীদের খোলা চিঠি

আপডেট : ০৩:১৯:৩৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৩ অক্টোবর ২০১৯

মেহেদী হাসান,রাবি সংবাদদাতা:

বাংলাদেশ প্রকৌশল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বুয়েট) শিক্ষার্থী আবরার হত্যার বিচার দাবিতে চতুর্থ দিনের মতো ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ করেছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) শিক্ষার্থীরা। রবিবার সকাল ১১টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে ‘সন্ত্রাস ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়’ ব্যানারে এ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়।

কর্মসূচি থেকে শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয়ের আচার্য ও রাষ্ট্রপতি আব্দুল হামিদ বরাবর একটি খোলা চিঠি পেশ করেন। চিঠিতে শিক্ষার্থীরা উল্লেখ করেন, ‘বর্তমানে বাংলাদেশের একটি চরম অগণতান্ত্রিক ও স্বৈরতান্ত্রিক শাসন ব্যবস্থা চলমান। যেখানে মানুষের ন্যূনতম মত প্রকাশের স্বাধীনতা ও জীবনের নিরাপত্তা নেই। সরকার দলীয় সন্ত্রাস ও দুর্নীতি দেশে একটি বিভৎস অরাজক অবস্থার সৃষ্টি করেছে।

সামগ্রিক এই অস্থিরতার করাল গ্রাসে দেশের বিশ্ববিদ্যালয়গুলোও আক্রান্ত। বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের স্বৈরতান্ত্রিক আচরণ, দুর্নীতি, নিয়োগ বাণিজ্য ও ছাত্রলীগের সন্ত্রাসী কর্মকাÐ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার স্বাভাবিক পরিবেশকে ব্যহত করছে। সাম্প্রতিক সময়ে ছাত্রলীগ কর্তৃক বুয়েট শিক্ষার্থী আবরার হত্যাকাÐ ও রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে ভিসির ‘জয় হিন্দ’ বক্তব্য এবং প্রো-ভিসির শিক্ষক নিয়োগ সংক্রান্ত অবৈধ আর্থিক লেনদেনের ফোনালাপ বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে চলমান সন্ত্রাস ও দুর্নীতির নগ্ন চিত্র তুলে ধরেছে। এমতাবস্থায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার সুষ্ঠু ও গণতান্ত্রিক পরিবেশ নিশ্চিত করার জন্য নি¤েœাক্ত দাবিতে ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন গড়ে তোলা আমাদের আশু কর্তব্য।’

চিঠিতে শিক্ষার্থীরা কয়েকটি দাবির কথা উল্লেখ করেন। উল্লেখযোগ্য দাবিগুলো হলো- আবরারের হত্যাকারীদের সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করা, বিভিন্ন সময়ে সংগঠিত শিক্ষক-শিক্ষার্থী হত্যা ও নির্যাতনের বিচার করা, দুর্নীতিগ্রস্ত-জালিয়াত-সন্ত্রাসী তোষণকারী ভিসি, প্রো-ভিসি’র অপসারণ এবং পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়গুলোতে স্বায়ত্ত¡শাসন নিশ্চিত করা, সন্ত্রাস ও দখলদারিত্বমুক্ত গণতান্ত্রিক শিক্ষাঙ্গন নিশ্চিতে দ্রæত রাকসু নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা, আবাসিক হলে ছাত্রলীগের সিট বাণিজ্য, পলিটিক্যাল বøক ও ছাত্র নির্যাতন বন্ধ করা, প্রশাসনের তত্ত¡াবধানে শিক্ষার্থীদের সিটের ব্যবস্থা করা, গবেষণা খাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের বাজেটে পর্যাপ্ত বরাদ্দসহ মেধার মূল্যায়নের ভিত্তিতে শিক্ষক নিয়োগ নিশ্চিতে ১৯৭৩’র অধ্যাদেশ যুগোপযোগী করা, ভারতের সঙ্গে সম্পাদিত অসম চুক্তিগুলো বাতিল করা।

রাবি শিক্ষার্থী রিদম শাহরিয়ারের সঞ্চালনায় বিক্ষোভ সমাবেশে বক্তব্য দেন মহব্বত হোসেন মিলন, রঞ্জু হাসান, শাকিল আহমেদ, মো. ইসরাফিল প্রমুখ।