বুধবার ২৭শে অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১১ই কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

“বর্ষবরণ মিনতি “

 মো. আসলাম হোসাইন, সহকারি কমিশনার ভুমি, ভুঞাপুর, টাঙ্গাইল:  |  আপডেট ৯:১৫ অপরাহ্ণ | সোমবার, ১৩ এপ্রিল ২০২০ | প্রিন্ট  | 293

“বর্ষবরণ মিনতি “

প্রিয় ভূঞাপুরবাসী, চলুন থামিয়ে দেই করোনার থাবা, আর নয়, অনেক হয়েছে, অনেক গড়িয়েছে যমুনার জল। যা হওয়ার তা ইতিমধ্যেই হয়ে গেছে, তাই বলে আর নয়। ঠিক এখনই,  এই মূহুর্ত থেকে, চলুন সবাই যার যার যায়গা থেকে, যে যেখানে আছি, যেভাবে আছি, যার যে মতাদর্শ থাক না কেন মানবতার তরে জেগে উঠি,জাগিয়ে দেই আমাদের চারপাশ।

চলমান ভাইরাসটি যেহেতু সামাজিক, তাই প্রথমেই জাগতে হবে সমাজকে,  সামাজিকভাবে প্রতিরোধ গড়ে তুলতে পারলে অনেকটা সহজ হয়ে যাবে অদৃশ্য প্রতিপক্ষের মোকাবিলা করা। চর্মচক্ষে অদৃশ্য যে ভাইরাস বন্দী করে ফেলেছে স্রষ্টার শ্রেষ্ঠ জীবদের, গন্তব্যহীন সেই করোনা কিন্তু বাহক ছাড়া চলে না, মাধ্যম ছাড়া ছড়ায় না। অতএব প্রথমেই আমরা ভাইরাসটির বাহক বা মাধ্যম সনাক্ত করি। প্রথমত, যারা প্রবাসী ছিলেন তারা এখন আর করোনা বিস্তার ঘটাচ্ছেন না, তারা যা করার করে ফেলেছেন। এখন সংক্রমণ এলাকা থেকে যারা এসেছে তাদেরকে বাধ্যতামূলক ঘরে অন্তরীণ করে ফেলি।


ভালোভাবে বলে কয়ে আর মনে হয় হবে না, তবুও সমাজের যে মানুষগুলোর কথা এখনও কিছু না কিছু মানে তাদের দিয়ে শেষবারের মতো বলি, এতে কাজ না হলে সামাজিকভাবে বয়কট করি, প্রয়োজন হলে নিষ্ঠুরভাবে প্রতিহত করি। সারা ভূঞাপুর এ বাইরে থেকে আসা এরকম সর্বোচ্চ হলে ১০০ জন হবে। অতএব কমবেশি প্রতি গ্রামেই আছে। এক গ্রামের একজন বা দুই জনের জন্য পুরো উপজেলা ডুবতে দেওয়া যায় না। মনে রাখতে হবে সময় কিন্তু অতি অল্প। আবার এটাও মনে রাখতে হবে তারা আমাদেরই প্রতিবেশী। অতএব সীমা অতিক্রম না করি।

যারা কর্মের খাতিরে ঢাকা বা নারায়ণগঞ্জ থাকেন  তাতে তো দোষ নেই। ব্যাধি যদি সাথে এসেই থাকে তাহলে তা ঢাকবেন কেমন করে। গোপন করলে কি মরবেন না? নিজেকে ভালোবাসেন আর না বাসেন, পরিবারের কাউকে ভালোবাসলে মাত্র ১৪ দিন ঘরে অন্তরীণ থেকে সেই ভালোভাসার প্রমাণ দিন। ভাইরাস কী আর আপন-পর বিবেচনা করে আক্রমণ করবে। আপনার দ্বারা যদি কেউ আক্রান্ত হয়, তবে আপনার আপনজনরাই আগে হবে। অতএব একটু সাবধান হতে দোষ কী।

পুরো উপজেলা জুড়ে,  আনাচে কানাচে নিজেদের উদ্যোগে তরুণ প্রজন্ম সোচ্চার হয়ে সচেতনতা তৈরি করি। অহেতুক মোবাইলে ব্যস্ত না থেকে, আড্ডা না দিয়ে নিজের চারপাশ সচেতন করি। তরুণের জাগরণ এখন খুবই জরুরি। সময় যেহেতু যুদ্ধের, অতএব জাগো তরুণ,  জাগো। ইতিহাস গড়ে নাও নিজের হাতে,  করোনা বিজয় ইতিহাস। সময় ও সুযোগ বারবার আসে না। লুফে নাও সুযোগ,  সময় এখন তারুণ্যের।

কোথায় সেই জনদরদী জনপ্রতিনিধি,  যারা এলাকার সর্বস্তরের জনগণের সর্বোচ্চ সেবা করার জন্য ভোটের মাঠে জয়ী হয়েছেন। আজ যদি আপনারা জনগণের পাশে না দাড়ান, মনে রাখবেন একলা বাচতে পারবেন না। ধান্দা যদি থেকে থাকে তবে বিপদ ভীষণ। কেউ ই ছাড় পাবেন না। জনগণের বিচার, কঠিন বিচার। তাই বলি স্বজনপ্রীতি বাদ দিয়ে প্রয়োজন অনুযায়ী ত্রাণ বিতরণে সচেষ্ট হোন। মনে রাখবেন যে তেলওয়ালার মাথায় তেল দিচ্ছেন সেই মাথা থাকবে তো এই দুনিয়ায়।

আপনার এলাকায় কে অসহায়, কে হাত পাততে জানে না,  কে নিরবে চোখের জল ফেলে, আর কে ত্রাণের বানে ভাসে, সবই আপনার চেয়ে ভালো আর কে জানে। সুতরাং সেই অনুযায়ী ত্রাণ বিতরণ করুন। দুনিয়াটা দুদিনের। এই আছি, এই নাই।
সমাজের বিত্তবান যারা দয়া করে বিলাসিতা ত্যাগ করুন, অপচয় পরিহার করুন।  আপনি টাকার কুমির বলেই ইচ্ছামত কিনে ফ্রিজ ভরবেন না। খেয়ে কী যেতে পারবেন, একবার ভাবুন।  আর যদি কিনতেই হয়, সেই কিষাণ-কিষাণীর পণ্য ক্রয় করুন, যে তার জমির উৎপাদিত সবজি বা পাচটি লাউ বিক্রি করতে না পারলে এক কেজি লবণ বা একটু তেল কিনতে পারবে না। আপনার আছে বেশি তাই বলে লাগামহীন ভোগ-বিলাসিতা ত্যাগ করুন, পারলে বেশি বেশি কিনে প্রতিবশী বা আত্মীয়ের মাঝে বিতরণ করুন। নিজের গ্রাম থেকে কিনে প্রতিবেশীকে বাচাতে এগিয়ে আসুন।

বাজার কমিটি আর কালবিলম্ব না করে কালকেই নিকটতম স্কুল কলেজের মাঠে শিক্ষক,  অভিভাবক ম্যানেজিং কমিটি,  জনপ্রতিনিধি, এলাকাবাসী,  গ্রাম পুলিশ,  ছাত্র- যুবকদের নিয়ে উন্মুক্ত পরিসরে দূরত্ব নির্ধারণ করে বাজার বসানোর ব্যবস্থা করুন। সম্ভব হলে দুপুর ১২ টা পর্যন্ত বাজারের সময় বেধে দিন যাতে বাজারের নামে সারাদিন আড্ডা না চলে। শুভ কাজে দেরি করতে নেই, কাজেই নববর্ষের দিন থেকেই সকলের মাথায় শুভ বুদ্ধির উদয় হোক।

অটো রিকশা চালক জানেন না বেশি ভাড়ার লোভে সর্দি জ্বরের নারায়ণগঞ্জ-ঢাকা  ফেরতকে পাশে বসিয়ে নিজের ও পরিবারের কী সর্বনাশ ডেকে নিচ্ছেন। শুধু কি তাই, সারাদিন কতজনকে ভাইরাসের উত্তম বাহক হয়ে মানব বংশধর বিলীন করছি। মাত্রই ক’টা দিন দেশের তরে, দশের তরে একটুখানি সবুর করি।

অযথা অযুহাত বন্ধ করি। ডানহাত- বামহাতই যথেষ্ট। অযুহাত নামক উটকো এবং বিশ্রী হাতটি আর না বানিয়ে চলুন ঘরে থেকে মা-বোনের দৈনন্দিন জীবনে একটু সাহায্য করি। সামান্য একটা কিছু ক্রয়ের বাহানায় ঘর না ছাড়ি।

করোনা নিয়ে তর্ক না করে চলুন স্রিষ্টিশীল কিছু করি। বিশ্বের অনেক বিশেষজ্ঞ আছে যারা এই কাজটি নিরলসভাবে করে যাচ্ছেন তাদের উপর আস্থা রেখে চলুন সবজি বাগান বা অনুরূপ কিছু করি।

উপসর্গ দেখা দিলে ডাক্তার এর সাথে আলাপ পূর্বক নমুনা পরীক্ষায় সহায়তা করি এবং নিজে সচেতনভাবে চলাফেরা নিয়ন্ত্রণ করি।

নিজেদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ানোর পাশাপাশি সকলের স্বাস্থ্য সচেতনতা তৈরি করি। দেশীয় যেসকল সবুজ, হলুদ ফলমূল, শাক সবজি খেলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে সেই সকল খাবার বেশি করে প্রতিদিন খাওয়ার চেষ্টা করি। নিয়মিত ব্যায়াম করি, কিছু সময় স্রষ্টার সান্নিধ্যে,  স্রষ্টাকে নিয়ে ব্যস্ত থাকি। পরিবারের বয়স্ক ও শিশুদের বিশেষ যত্ন নিতে ভূলে যেন না যাই।
মো. আসলাম হোসাইন, সহকারি কমিশনার ভুমি, ভুঞাপুর, টাঙ্গাইল:
তারিখ- ১৩-০৪-২০২০
মোবাইল ০১৬৭৩৪৭১০০৮

শেয়ার করুন..

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

এক ক্লিকে বিভাগের খবর

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১  
ঘোষনা : আমাদের পূর্বকন্ঠ ওয়েবসাইটে প্রবেশ করার জন্য আপনাকে স্বাগতম। আপনার আশপাশে ঘটে যাওয়া খবরা খবর জানাতে আমাদের ফোন করুন-০১৭১৩৫৭৩৫০২ এই নাম্বারে ☎ গুরুত্বপূর্ণ নাম্বার সমূহ : ☎ জরুরী সেবা : ৯৯৯ ☎ নেত্রকোনা ফায়ার স্টেশন: ০১৭৮৯৭৪৪২১২☎ জেলা প্রশাসক ,নেত্রকোনা:০১৩১৮-২৫১৪০১ ☎ পুলিশ সুপার,নেত্রকোনা: ০১৩২০১০৪১০০☎ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, সদর সার্কেল : ০১৩২০১০৪১৪৫ ☎ ইউএনও,পূর্বধলা : ০১৭৯৩৭৬২১০৮☎ ওসি পূর্বধলা : ০১৩২০১০৪৩১৫ ☎ শ্যামগঞ্জ পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র : ০১৩২০১০৪৩৩৩ ☎ ওসি শ্যামগঞ্জ হাইওয়ে থানা : ০১৩২০১৮২৮২৬ ☎ উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা, পূর্বধলা: ০১৭০০৭১৭২১২/০৯৫৩২৫৬১০৬ ☎ উপজেলা সমাজসেবা অফিসার, পূর্বধলা : ০১৭১৮৩৮৭৫৮৭/০১৭০৮৪১৫০২২ ☎ উপজেলা মৎস্য অফিসার, পূর্বধলা : ০১৫১৫-৬১৪৯২১ ☎ উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা, পূর্বধলা : ০১৯৯০-৭০৩০২০ ☎ উপজেলা প্রাণি সম্পদ অফিসার, পূর্বধলা : ০১৭১৮-৭২৮২৯৪ ☎ উপজেলা প্রকৌশলী (এলজিইডি) পূর্বধলা :০১৭০৮-১৬১৪৫৭ ☎ উপজেলা আনসার ভিডিপি অফিসার, পূর্বধলা : ০১৯১৪-৯১৯৯৩৮ ☎ উপ-সহকারি প্রকৌশলী, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অফিস, পূর্বধলা : ০১৯১৬-৮২৬৬৬৮ ☎ উপজেলা যুব উন্নয়ন অফিসার, পূর্বধলা : ০১৭১১-৭৮৯৭৯৮ ☎ উপজেলা কৃষি অফিসার, পূর্বধলা : ০১৭১৬-৭৯৮৯৪৬ ☎ উপজেলা শিক্ষা অফিসার, পূর্বধলা : ০১৭১৫-৪৭৪২৯৬ ☎ উপজেলা সমবায় অফিসার, পূর্বধলা : ০১৭১৭-০৪৩৬৩৯ ☎ সম্পাদক পূর্বকন্ঠ ☎ ০১৭১৩৫৭৩৫০২ ☎
মোঃ শফিকুল আলম শাহীন সম্পাদক ও প্রকাশক
পূর্বকণ্ঠ ২০১৬ সালে তথ্য অধিদপ্তরে নিবন্ধনের জন্য আবেদিত।
বার্তা ও সম্পাদকীয় কার্যালয়

স্টেশন রোড, পূর্বধলা, নেত্রকোনা।

হেল্প লাইনঃ +৮৮০৯৬৯৬৭৭৩৫০২

E-mail: info@purbakantho.com