নেত্রকোনা ০৬:০১ অপরাহ্ন, সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ২১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

ফেইসবুকে নেত্রকোনা-১ আসনের সাংসদকে নিয়ে কটুক্তি,প্রধান শিক্ষকসহ আটক-২

  • আপডেট : ০৫:২৯:১৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৯
  • ১৮১৪ বার পঠিত

কে. এম. সাখাওয়াত হোসেন, নেত্রকোনা :  নেত্রকোনার দুর্গাপুর উপজেলার নেত্রকোনা-১ (দুর্গাপুর-কলমাকান্দা) আসনের সংসদ সদস্য মানু মজুমদারকে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে কটুক্তিকর মন্তব্য করায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকসহ দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ।

সোমবার (৯ সেপ্টেম্বর) দিনগত রাতে কেন্দ্রীয় প্রতিরোধ যোদ্ধার সদস্য ও উপজেলা প্রতিরোধ যোদ্ধার সভাপতি গিলভার্ট চিচাম বাদি হয়ে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ২০১৮ এর ২৫/২, ২৯/১, ৩১/২ ও ৩৫/১ ধারায় দুইজনের নাম উল্লেখসহ ২০/২৫ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করে দুর্গাপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

এই মামলাই নাম উল্লেখিত দুই আসামী দুর্গাপুর পৌর শহরের সাধুপাড়া এলাকার মৃত শামসুর হকের ছেলে উত্তর ফারংপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আমিনুল হক (৪৮) ও কলমাকান্দা উপজেলার বাদে আমতৈল গ্রামের মৃত আব্দুল সামাদের ছেলে রমজান মিয়াকে (৩০) আটক দেখানো হয়।

মামলা সূত্রে জানা যায়, সম্প্রীতি সাবেক সংসদ সদস্য মোশতাক আহমেদ রুহীর ব্যক্তিগত সামাজিক যোগাযোগ ফেসবুক আইডিতে ‘জাদুকরী প্রহসনে বিবেকের দহনে’ নামে একটি ফিচার প্রকাশিত হয়। এ পোষ্টে আমিনুল হক, রমজানসহ কয়েকজন সাংসদ মানু মজুমদারকে নিয়ে কটুক্তিকর মতামত প্রকাশ করে। যা রাষ্ট্রের ভাবমূর্তি সুনাম ক্ষুন্ন করে, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি অস্থিরতা ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিসহ সংসদ সদস্যের তথ্য প্রকাশ করা হয়।

এ ব্যাপারে দুর্গাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মিজানুর রহমান বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে। ইতোমধ্যে দুইজনকে আটক করে মঙ্গলবার দুপুরে দুর্গাপুর সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। অন্যান্যদের আটকে পুলিশি অভিযান অব্যাহত আছে বলে তিনি জানান।

আপনার মন্তব্য লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষণ করুন

প্রকাশক ও সম্পাদক সম্পর্কে-

শফিকুল আলম শাহীন

আমি একজন ওয়েব ডেভেলপার ও সাংবাদিক। আমি দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকায় পূর্বধলা উপজেলা সংবাদদাতা হিসেবে কর্মরত । সেইসাথে পূর্বকণ্ঠ অনলাইন প্রকাশনার সম্পাদক ও প্রকাশক। আমার বর্তমান ঠিকানা স্টেশন রোড, পূর্বধলা, নেত্রকোনা। আমি জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে ইতিবাচক। আমার ধর্ম ইসলাম। আমি করতে, দেখতে এবং অভিজ্ঞতা করতে পছন্দ করি এমন অনেক কিছু আছে। আমি আইটি সেক্টর নিয়ে বিভিন্ন এক্সপেরিমেন্ট করতে পছন্দ করি। যেমন ওয়েব পেজ তৈরি করা, বিভিন্ন অ্যাপ তৈরি করা, রেডিও স্টেশন তৈরি করা, অনলাইন সংবাদপত্র তৈরি করা ইত্যাদি। প্রয়োজনে: ০১৭১৩৫৭৩৫০২
জনপ্রিয়

ফেইসবুকে নেত্রকোনা-১ আসনের সাংসদকে নিয়ে কটুক্তি,প্রধান শিক্ষকসহ আটক-২

আপডেট : ০৫:২৯:১৪ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৯

কে. এম. সাখাওয়াত হোসেন, নেত্রকোনা :  নেত্রকোনার দুর্গাপুর উপজেলার নেত্রকোনা-১ (দুর্গাপুর-কলমাকান্দা) আসনের সংসদ সদস্য মানু মজুমদারকে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেইসবুকে কটুক্তিকর মন্তব্য করায় প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকসহ দুইজনকে আটক করেছে পুলিশ।

সোমবার (৯ সেপ্টেম্বর) দিনগত রাতে কেন্দ্রীয় প্রতিরোধ যোদ্ধার সদস্য ও উপজেলা প্রতিরোধ যোদ্ধার সভাপতি গিলভার্ট চিচাম বাদি হয়ে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন ২০১৮ এর ২৫/২, ২৯/১, ৩১/২ ও ৩৫/১ ধারায় দুইজনের নাম উল্লেখসহ ২০/২৫ জনকে অজ্ঞাতনামা আসামি করে দুর্গাপুর থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

এই মামলাই নাম উল্লেখিত দুই আসামী দুর্গাপুর পৌর শহরের সাধুপাড়া এলাকার মৃত শামসুর হকের ছেলে উত্তর ফারংপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আমিনুল হক (৪৮) ও কলমাকান্দা উপজেলার বাদে আমতৈল গ্রামের মৃত আব্দুল সামাদের ছেলে রমজান মিয়াকে (৩০) আটক দেখানো হয়।

মামলা সূত্রে জানা যায়, সম্প্রীতি সাবেক সংসদ সদস্য মোশতাক আহমেদ রুহীর ব্যক্তিগত সামাজিক যোগাযোগ ফেসবুক আইডিতে ‘জাদুকরী প্রহসনে বিবেকের দহনে’ নামে একটি ফিচার প্রকাশিত হয়। এ পোষ্টে আমিনুল হক, রমজানসহ কয়েকজন সাংসদ মানু মজুমদারকে নিয়ে কটুক্তিকর মতামত প্রকাশ করে। যা রাষ্ট্রের ভাবমূর্তি সুনাম ক্ষুন্ন করে, সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি অস্থিরতা ও বিশৃঙ্খলা সৃষ্টিসহ সংসদ সদস্যের তথ্য প্রকাশ করা হয়।

এ ব্যাপারে দুর্গাপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মিজানুর রহমান বলেন, ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে থানায় একটি মামলা দায়ের হয়েছে। ইতোমধ্যে দুইজনকে আটক করে মঙ্গলবার দুপুরে দুর্গাপুর সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। অন্যান্যদের আটকে পুলিশি অভিযান অব্যাহত আছে বলে তিনি জানান।