শনিবার ১৩ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৩০শে চৈত্র, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

দুর্গাপুর সীমান্ত এলাকায় ১০ মাস ১২ দিন পর আট বাংলাদেশীকে ফেরত দিল ভারত

 |  আপডেট ১১:৫০ অপরাহ্ণ | বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯ | প্রিন্ট  | 358

দুর্গাপুর সীমান্ত এলাকায় ১০ মাস ১২ দিন পর আট বাংলাদেশীকে ফেরত দিল ভারত

কে. এম. সাখাওয়াত হোসেন, নেত্কোনা :

নেত্রকোনার দুর্গাপুর উপজেলার সীমান্ত এলাকা থেকে ভারতে অনুপ্রবেশের দায়ে আট বাংলাদেশীকে ফেরত দিয়েছে ভারতের সীমান্তরক্ষা বাহিনী (বিএসএফ)। বৃহস্পতিবার (১৭ অক্টোবর) বিকেলে ভারত-বাংলাদেশের সীমান্ত দুর্গাপুরের বিজয়পুর জিরো পয়েন্টে দুই দেশের সীমান্তরক্ষা বাহিনী ও বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীর এক বৈঠকে অনুপ্রবেশকারীকে ফিরিয়ে দেয় ভারত।


এ সময় বাংলাদেশের পক্ষে দুর্গাপুর থানার উপ-পরিদর্শক সুমন চন্দ্র দাস নেতৃত্বে ছয় সদস্যাদের একটি দল চার শিশু, তিন মহিলা ও একজন পুরুষ সহ মোট আট বাংলাদেশীকে ফিরিয়ে আনেন । আটককৃতরা সবাই কলমাকান্দা উপজেলার বাসিন্দা।

ওই উপজেলার ঘোষপাড়া পূর্ব বাজার এলাকার ভূপেন্দ চন্দ্র সরকারের ছেলে নির্মল সরকার, তার স্ত্রী সুমা সরকার এবং দুই শিশু কন্যা নিঝুম সরকার তিস্তা ও সুস্মিতা সরকার তিশা। নওগাঁও গ্রামের রিপন রায়ে স্ত্রী কনা রানী তালুকদার, কবি রঞ্জন তালুকদারের স্ত্রী নুপুর রানী তালুকদার এবং তার দুই ছেলে শিশু কর্ন তালুকদার ও প্রিতোষ তালুকদার।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, গত বছরের ৫ ডিসেম্বর কলমাকান্দা উপজেলার লেংগুড়া সিমান্ত নিয়ে ভারতে অনুপ্রবেশ দায়ে ভারতীয় সীমান্তরক্ষী বাহিনী (বিএসএফ) তাদেরকে আটক করে এবং অনুপ্রবেশের দায়ে তাদেরকে তিন মাসের জেল দেয় সেখানকার আদালত। ১০ মাস ১২ দিন ভারতীয় জেলে থাকার পর বৃহস্পতিবার আটককৃত আটজনকে মুক্তি দেয় ভারত । পরে দুর্গাপুর থানা থেকে পরিবারের সদস্যরা তাদেরকে বাড়ি নিয়ে যায়।

দুর্গাপুর থানা উপ-পরিদর্শক (এসআই) সুমন চন্দ্র সাহা জানান, দালালে মাধ্যমে  ভারতের কোচ বিহারে রাশি মনি মেলা দেখতে অনুপ্রবেশের দায়ে আট বাংলাদেশীকে আটক করে ভারত। বৃহস্পতিবার দুই দেশের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর যৌথ মিটিংয়ের পর আট বাংলাদেশীকে ফিরিয়ে আনা হয়েছে।

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
মোঃ শফিকুল আলম শাহীন প্রকাশক ও সম্পাদক
বার্তা ও সম্পাদকীয় কার্যালয়

স্টেশন রোড, পূর্বধলা, নেত্রকোনা।

হেল্প লাইনঃ ০১৭১৩৫৭৩৫০২

E-mail: info@purbakantho.com