মঙ্গলবার ১৬ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৩রা বৈশাখ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

গৌরীপুরে ফুটবল খেলার অপরাধে ৫ম শ্রেণির ছাত্রকে বেত্রাঘাতে জখম করলেন শিক্ষক !

 |  আপডেট ৭:৪০ অপরাহ্ণ | সোমবার, ১৯ আগস্ট ২০১৯ | প্রিন্ট  | 176

গৌরীপুরে ফুটবল খেলার অপরাধে ৫ম শ্রেণির ছাত্রকে বেত্রাঘাতে জখম করলেন শিক্ষক !

গৌরীপুর (ময়মনসিংহ) প্রতিনিধি :

ফুটবল খেলার অপরাধে ৫ম শ্রেণির ছাত্র সিয়াম ইসলাম নিরবকে শ্রেণিকক্ষে বেধড়ক বেত্রাঘাত করে রক্তাক্ত জখমের অভিযোগ ওঠেছে তার স্কুলের সহকারি শিক্ষক ফেরদৌস আহাম্মদের বিরুদ্ধে। রবিবার (১৮ আগস্ট) বেলা সাড়ে ১১টার দিকে ময়মনসিংহের গৌরীপুর উপজেলার রামজীবনপুর আব্দুর রহমান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনায় ভুক্তভোগী শিশু ছাত্রের বাবা আবুল হোছাইন পরদিন সোমবার উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।


ওই শিশু ছাত্রের বাবা আবুল হোছাইন অভিযোগ করে জানান, ঘটনারদিন সকাল সাড়ে ১০ টার দিকে স্কুলের ফুটবল নিয়ে সিয়াম তার সহপাঠিদের নিয়ে স্কুল মাঠে খেলা করে। খেলা শেষে স্কুলে ফুটবল জমা দিয়ে শ্রেনিকক্ষে যায় সিয়াম। শ্রেণিকক্ষে যাওয়ার পর স্কুলের সহকারি শিক্ষক ফেরদৌস আহাম্মদ খেলাধূলার করার অপরাধে সিয়ামকে বেত দিয়ে বেধড়ক পেঠান। এসময় শিক্ষকের বেত্রাঘাতে সিয়ামের ডান পায়ে রক্তাত্ব জখম হয়। পরে তাকে এদিন গৌরীপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে বাড়িতে নিয়ে আসেন তিনি।

আবুল হোছাইন আরো জানান, ঘটনার পর উল্লেখিত শিক্ষক তার ছেলের কোন খোঁজ খবর নেননি। তিনি এ ঘটনার বিচার দাবি করেন।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে স্কুলের সহকারি শিক্ষক ফেরদৌস আহাম্মদ জানান, ঘটনারদিন স্কুল মাঠে ফুটবল খেলার সময় বলটি স্কুলের ছাদে গিয়ে পড়ে। গাছ বেয়ে এ বল ছাদ থেকে নামাতে গিয়ে সিয়াম তার এক সহপাঠির সাথে ঝগড়ায় লিপ্ত হয়। এ কারনে সিয়ামকে তিনি শাসন করেছিলেন। তিনি আরো জানান, শাসনের সময় ভয় দেখাতে গিয়ে অনিচ্ছাকৃতভাবে সিয়ামের পায়ে একটি বেত্রাঘাত লাগে।

স্কুলের প্রধান শিক্ষক নূর মোহাম্মদ জানান, ঘটনারদিন তিনি ছুটিতে ছিলেন। তিনি স্কুলে থাকলে হয়তো এমন ঘটনা ঘটত না। খবর পেয়ে তিনি সিয়ামকে দেখতে হাসপাতালে গিয়ে তাকে ও তার পরিবারকে শান্তনা দিয়েছেন।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার ফারহানা করিম জানান, এ ঘটনায় স্কুল ছাত্রের বাবা লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। ঘটনা তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার জন্য উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারকে নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মুহাম্মদ শফিকুল ইসলাম খান জানান, ঘটনার তদন্ত কার্যক্রম চলছে। তদন্ত শেষে এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
মোঃ শফিকুল আলম শাহীন প্রকাশক ও সম্পাদক
বার্তা ও সম্পাদকীয় কার্যালয়

স্টেশন রোড, পূর্বধলা, নেত্রকোনা।

হেল্প লাইনঃ ০১৭১৩৫৭৩৫০২

E-mail: info@purbakantho.com