নেত্রকোনা ০৫:১০ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ৯ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

গাজীপুরের চন্দ্রা হতে অপহৃত ভিকটিম ভবানীপুর থেকে উদ্ধার

  • আপডেট : ১২:৪৬:০০ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯
  • ২৭৯

সামসুল হক জুয়েল, গাজীপুর প্রতিনিধি:

গাজীপুরে অপহরনের ১৩ ঘন্টা পর ভিকটিম মো: ফেরদৌস রহমান স্বপন (৩৫) কে উদ্ধার করেছে র‌্যাব-১ এর একটি দল ।

মঙ্গলবার (২৪ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে এগারোটায় গাজীপুরের শ্রীপুরের ভবানীপুর এলাকা তাকে উদ্ধার করা হয় ।

উদ্ধারকৃত ভিকটিম মো: ফেরদৌস রহমান স্বপন নওগা সদর থানার নারচি এলাকার মোঃ অফিজ উদ্দিনের ছেলে।সে গাজীপুরের কালিয়াকৈর থানার চন্দ্রা হরতকী তোলা এলাকায় ভাড়া বাসা থেকে একটি গার্মেন্টসে চাকুরি করতো।

র‌্যাব জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, গাজীপুরের শ্রীপুরের ভবানীপুর এলাকায় কিছু অপহরণকারী ভিকটিমসহ মুক্তিপণের টাকা নেয়ার জন্য অবস্থান করছে। প্রাপ্ত সংবাদের ভিত্তিতে আভিযানিক দলটি ভবানীপুর বাজার এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে।এসময় অপহরণকারীরা র‌্যাবের উপস্থিতি টেরপেয়ে অপহরণকৃত ভিকটিম স্বপন কে নিয়ে একটি সাদা মাইক্রোবাস যোগে মাওনার দিকে পালানোর উদ্দেশ্যে রওনা করলে আভিযানিক দলটি অপহরনকারীদের গ্রেফতার ও ভিকটিমকে উদ্ধার করার জন্য উক্ত গাড়ীর পিছনে ধাওয়া করে।

এসময় অপহনকারীরা ভিকটিমকে ভবানীপুর এলাকায় ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের উপর ফেলে দ্রুত পালিয়ে যায়।পরে র‌্যাবের অভিযানিক দলটি ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের উপর হইতে ভিকটিমকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় উদ্ধার করে।

গতকাল মঙ্গলবার রাতে র‌্যাবের এক প্রেস রিলিজে এসব তথ্য জানানো হয় ।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, অপহৃত ভিকটিম পেশায় একজন গার্মেন্টস কর্মকতা। প্রতিদিনের মতো সে তার ভাড়া বাসা হতে তার কর্মস্থলে যাওয়ার পথে চন্দ্রামোড় এলাকায় আশা মাত্র মঙ্গলবার (২৪ সেপ্টেম্বর) নয়টার দিকে ৫/৬ জন অজ্ঞাতনামা লোক ভিকটিমকে জোরপূর্বক অপহরণ করে একটি কালো মাইক্রোবাস যোগে বারইপাড়ার দিকে অপহরণ করে নিয়ে যায়।

অপহরণের পর তার পরিবারের লোকজন অনেক খোঁজাখুঁজি করে তাকে না পেয়ে কালিয়াকৈর থানায় একটি সাধারন ডাইরী করেন। যার নম্বর -১৮২০।

পরে ভিকটিমকে চোখ বাধা অবস্থায় একটি গোপন কক্ষে আটকে রেখে লোহার রড দ্বারা আঘাত করে ভিকটিমের শরীরের বিভিন্ন স্থানে ব্যাপক পরিমানে নীলা ফুলা জখম করে হত্যার ভয়-ভিত্তি প্রদর্শন করে এবং দুপুর সাড়ে বারটার দিকে অপহরনকারীরা ভিকটিমের মোবাইল ফোনের মাধ্যমে তার পরিবারের কাছে মুক্তিপণ হিসেবে ০৫ লক্ষ টাকা দাবি করে।

ভিকটিমের সাথে থাকা সিটি ব্যাংক লিঃ এর ক্রেডিট কার্ডসহ জোরপূর্বক পিন নম্বর নিয়ে নেয় এবং ভিকটিমকে হত্যার ভয় দেখিয়ে তার পরিবারের নিকট হতে বিকাশের মাধ্যমে ০১ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়।

অপহরনের বিষয়টি মঙ্গলবার ২৪ সেপ্টেম্বর বিকেল সাড়ে চারটার দিকে ভিকটিমের স্ত্রী র‌্যাব-১, স্পেশালাইজড কোম্পানী, পোড়াবাড়ী ক্যাম্প, গাজীপুর এসে অপহৃত স্বামীর জন্য আইনগত সাহায্য কামনা করে। অপহরণের ঘটনাটি অবহিত হওয়া মাত্রই অপহৃত ভিকটিম ও অপহরণকারীদের অবস্থান নিশ্চিত করে র‌্যাব-১।

পোড়াবাড়ী ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার লেঃ কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল-মামুন, (জি), বিএন এর নেতৃত্বে সঙ্গীয় গফোর্সসহ গাজীপুর জেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করে অবশেষে গাজীপুর জেলার শ্রীপুর
থানাধীন ভবানীপুর এলাকার ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের উপর হতে ভিকটিমকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় উদ্ধার করা হয়।

আপনার মন্তব্য লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষণ করুন

প্রকাশক ও সম্পাদক সম্পর্কে-

আমি মো. শফিকুল আলম শাহীন। আমি একজন ওয়েব ডেভেলপার ও সাংবাদিক । আমি পূর্বকণ্ঠ অনলাইন প্রকাশনার সম্পাদক ও প্রকাশক। আমি জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে ইতিবাচক। আমি করতে, দেখতে এবং অভিজ্ঞতা করতে পছন্দ করি এমন অনেক কিছু আছে। আমি আইটি সেক্টর নিয়ে বিভিন্ন এক্সপেরিমেন্ট করতে পছন্দ করি। যেমন ওয়েব পেজ তৈরি করা, বিভিন্ন অ্যাপ তৈরি করা, অনলাইন রেডিও স্টেশন তৈরি করা, অনলাইন সংবাদপত্র তৈরি করা ইত্যাদি। আমাদের প্রকাশনা “পূর্বকন্ঠ” স্বাধীনতার চেতনায় একটি নিরপেক্ষ জাতীয় অনলাইন । পাঠক আমাদের সবচেয়ে বড় অনুপ্রেরনা। পূর্বকণ্ঠ কথা বলে বাঙালির আত্মপ্রত্যয়ী আহ্বান ও ত্যাগে অর্জিত স্বাধীনতার। কথা বলে স্বাধীনতার চেতনায় উদ্বুদ্ধ হতে। ছড়িয়ে দিতে এ চেতনা দেশের প্রত্যেক কোণে কোণে। আমরা রাষ্ট্রের আইন কানুন, রীতিনীতির প্রতি শ্রদ্ধাশীল। দেশপ্রেম ও রাষ্ট্রীয় আইন বিরোধী এবং বাঙ্গালীর আবহমান কালের সামাজিক সহনশীলতার বিপক্ষে পূর্বকন্ঠ কখনো সংবাদ প্রকাশ করে না। আমরা সকল ধর্মমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল, কোন ধর্মমত বা তাদের অনুসারীদের অনুভূতিতে আঘাত দিয়ে আমরা কিছু প্রকাশ করি না। আমাদের সকল প্রচেষ্টা পাঠকের সংবাদ চাহিদাকে কেন্দ্র করে। তাই পাঠকের যে কোনো মতামত আমরা সাদরে গ্রহন করব।

গাজীপুরের চন্দ্রা হতে অপহৃত ভিকটিম ভবানীপুর থেকে উদ্ধার

আপডেট : ১২:৪৬:০০ অপরাহ্ন, বুধবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯

সামসুল হক জুয়েল, গাজীপুর প্রতিনিধি:

গাজীপুরে অপহরনের ১৩ ঘন্টা পর ভিকটিম মো: ফেরদৌস রহমান স্বপন (৩৫) কে উদ্ধার করেছে র‌্যাব-১ এর একটি দল ।

মঙ্গলবার (২৪ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে এগারোটায় গাজীপুরের শ্রীপুরের ভবানীপুর এলাকা তাকে উদ্ধার করা হয় ।

উদ্ধারকৃত ভিকটিম মো: ফেরদৌস রহমান স্বপন নওগা সদর থানার নারচি এলাকার মোঃ অফিজ উদ্দিনের ছেলে।সে গাজীপুরের কালিয়াকৈর থানার চন্দ্রা হরতকী তোলা এলাকায় ভাড়া বাসা থেকে একটি গার্মেন্টসে চাকুরি করতো।

র‌্যাব জানায়, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে জানতে পারে যে, গাজীপুরের শ্রীপুরের ভবানীপুর এলাকায় কিছু অপহরণকারী ভিকটিমসহ মুক্তিপণের টাকা নেয়ার জন্য অবস্থান করছে। প্রাপ্ত সংবাদের ভিত্তিতে আভিযানিক দলটি ভবানীপুর বাজার এলাকায় অভিযান পরিচালনা করে।এসময় অপহরণকারীরা র‌্যাবের উপস্থিতি টেরপেয়ে অপহরণকৃত ভিকটিম স্বপন কে নিয়ে একটি সাদা মাইক্রোবাস যোগে মাওনার দিকে পালানোর উদ্দেশ্যে রওনা করলে আভিযানিক দলটি অপহরনকারীদের গ্রেফতার ও ভিকটিমকে উদ্ধার করার জন্য উক্ত গাড়ীর পিছনে ধাওয়া করে।

এসময় অপহনকারীরা ভিকটিমকে ভবানীপুর এলাকায় ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের উপর ফেলে দ্রুত পালিয়ে যায়।পরে র‌্যাবের অভিযানিক দলটি ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের উপর হইতে ভিকটিমকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় উদ্ধার করে।

গতকাল মঙ্গলবার রাতে র‌্যাবের এক প্রেস রিলিজে এসব তথ্য জানানো হয় ।

ঘটনার বিবরণে জানা যায়, অপহৃত ভিকটিম পেশায় একজন গার্মেন্টস কর্মকতা। প্রতিদিনের মতো সে তার ভাড়া বাসা হতে তার কর্মস্থলে যাওয়ার পথে চন্দ্রামোড় এলাকায় আশা মাত্র মঙ্গলবার (২৪ সেপ্টেম্বর) নয়টার দিকে ৫/৬ জন অজ্ঞাতনামা লোক ভিকটিমকে জোরপূর্বক অপহরণ করে একটি কালো মাইক্রোবাস যোগে বারইপাড়ার দিকে অপহরণ করে নিয়ে যায়।

অপহরণের পর তার পরিবারের লোকজন অনেক খোঁজাখুঁজি করে তাকে না পেয়ে কালিয়াকৈর থানায় একটি সাধারন ডাইরী করেন। যার নম্বর -১৮২০।

পরে ভিকটিমকে চোখ বাধা অবস্থায় একটি গোপন কক্ষে আটকে রেখে লোহার রড দ্বারা আঘাত করে ভিকটিমের শরীরের বিভিন্ন স্থানে ব্যাপক পরিমানে নীলা ফুলা জখম করে হত্যার ভয়-ভিত্তি প্রদর্শন করে এবং দুপুর সাড়ে বারটার দিকে অপহরনকারীরা ভিকটিমের মোবাইল ফোনের মাধ্যমে তার পরিবারের কাছে মুক্তিপণ হিসেবে ০৫ লক্ষ টাকা দাবি করে।

ভিকটিমের সাথে থাকা সিটি ব্যাংক লিঃ এর ক্রেডিট কার্ডসহ জোরপূর্বক পিন নম্বর নিয়ে নেয় এবং ভিকটিমকে হত্যার ভয় দেখিয়ে তার পরিবারের নিকট হতে বিকাশের মাধ্যমে ০১ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নেয়।

অপহরনের বিষয়টি মঙ্গলবার ২৪ সেপ্টেম্বর বিকেল সাড়ে চারটার দিকে ভিকটিমের স্ত্রী র‌্যাব-১, স্পেশালাইজড কোম্পানী, পোড়াবাড়ী ক্যাম্প, গাজীপুর এসে অপহৃত স্বামীর জন্য আইনগত সাহায্য কামনা করে। অপহরণের ঘটনাটি অবহিত হওয়া মাত্রই অপহৃত ভিকটিম ও অপহরণকারীদের অবস্থান নিশ্চিত করে র‌্যাব-১।

পোড়াবাড়ী ক্যাম্পের কোম্পানী কমান্ডার লেঃ কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল-মামুন, (জি), বিএন এর নেতৃত্বে সঙ্গীয় গফোর্সসহ গাজীপুর জেলার বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করে অবশেষে গাজীপুর জেলার শ্রীপুর
থানাধীন ভবানীপুর এলাকার ঢাকা-ময়মনসিংহ মহাসড়কের উপর হতে ভিকটিমকে গুরুতর অসুস্থ অবস্থায় উদ্ধার করা হয়।