নেত্রকোনা ০৩:৫৩ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ৯ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

খালিয়াজুরীতে ছাত্রকে বলাৎকারের অভিযোগে মাদ্রাসার সুপার গ্রেফতার

  • আপডেট : ০৬:৩০:২৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯
  • ২৩৩

শফিকুল ইসলাম তালুকদার,খালিয়াজুরী (নেত্রকোণা) প্রতিনিধি ঃ

নেত্রকোণা জেলার খালিয়াজুরীতে ছাত্রকে বলাৎকারের অভিযোগে মাদ্রাসার সুপারকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার গভীর রাতে খালিয়াজুরী থানার পুলিশ ওই মাদ্রাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করেন।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার দুপুরে থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে জানান খালিয়াজুরী থানার ওসি। গ্রেফতারকৃত ওই মাদ্রাসার সুপারের নাম বশিরুল ইসলাম (৫৭), তিনি খালিয়াজুরী এবতেদায়ী কওমিয়া হাফিজিয়া ইসলামিয়া মাদ্রাসার সুপারেন্টেন্ড। সুপার ওই মাদ্রাসার ভিতরে একটি রুমে বসবাস করেন। খালিয়াজুরী থানার অফিসার ইনচার্জ এ.টি.এম মাহমুদুল হক জানান উক্ত মাদ্রাসার পরিচালনা পরিষদের সভাপতি গোলাম আবু ইছহাক থানায় এসে ১১ বছরের এক ছাত্রকে বলাৎকারের অভিযোগ করেন।

বলাৎকারের স্বীকার ওই ছাত্রে বাড়ী খালিয়াজুরী উপজেলার চাকুয়া ইউনিয়নের ফতুয়া গ্রামে। সে ওই মাদ্রাসার আবাসিক ছাত্র। তার অভিযোগের ভিত্তিতে রাতেই অভিযান চলিয়ে ওই মাদ্রাসা থেকে সুপার বশিরুল ইসলামকে গ্রেফতার করা হয়। বলাৎকারের স্বীকার ওই ছাত্র জানান সে মাদ্রাসার আবাসিক মেসে থেকে কিতাব বিভাগে পড়ে। গত রবিবার রাতে তাকে ডেকে নিয়ে মাদ্রাসার সুপার তার নিজ কক্ষে পা টিপতে দেন। এক পর্যায়ে সুপার তাকে জোর করে ধরে বলাৎকার করেন। বিষয়টি কাউকে বল্লে মাদ্রাসা থেকে বের করে দেওয়ার হুমকিও দেন তিনি।

ওই ছাত্র আরো জানান, গত সোমবার সে বিষয়টি তার এক শিক্ষককে প্রথমে জানায় পরে ওই শিক্ষক বিষয়টি মাদ্রাসার পরিচালনা কমিটির সভাপতি গোলাম আবু ইছহাককে জানালে, তিনি বিষয়টি কমিটির সাথে আলোচনা করে রাতে খালিয়াজুরী থানার ওসি’কে জানান। নাম প্রকাশ না করার শর্তে ওই মাদ্রাসার একজন শিক্ষক বলেন, অনেক ছাত্রের সাথে মাদ্রাসার সুপার এধরনের আচরণ করেছেন। তারা লজ্জায় বিষয়টি প্রকাশ করেননি।

মাদ্রাসার আরেক শিক্ষক বলেন গত ৬মাস আগেও এক ছাত্রের সঙ্গে এধরনের অপকর্ম করেছেন। প্রতিবাদ করলে চাকুরীচ্যুত করা হবে এরকম হুমকি দেন। একারনে ভয়ে সুপারের বিরুদ্ধে কেউ মুখ খুলেননা। বিষয়টি জানাজানি হলে, ছাত্রের মা বাদী হয়ে খালিয়াজুরী থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। খালিয়াজুরী থানার ওসি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এব্যপারে খালিয়াজুরী থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।

আপনার মন্তব্য লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষণ করুন

প্রকাশক ও সম্পাদক সম্পর্কে-

আমি মো. শফিকুল আলম শাহীন। আমি একজন ওয়েব ডেভেলপার ও সাংবাদিক । আমি পূর্বকণ্ঠ অনলাইন প্রকাশনার সম্পাদক ও প্রকাশক। আমি জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে ইতিবাচক। আমি করতে, দেখতে এবং অভিজ্ঞতা করতে পছন্দ করি এমন অনেক কিছু আছে। আমি আইটি সেক্টর নিয়ে বিভিন্ন এক্সপেরিমেন্ট করতে পছন্দ করি। যেমন ওয়েব পেজ তৈরি করা, বিভিন্ন অ্যাপ তৈরি করা, অনলাইন রেডিও স্টেশন তৈরি করা, অনলাইন সংবাদপত্র তৈরি করা ইত্যাদি। আমাদের প্রকাশনা “পূর্বকন্ঠ” স্বাধীনতার চেতনায় একটি নিরপেক্ষ জাতীয় অনলাইন । পাঠক আমাদের সবচেয়ে বড় অনুপ্রেরনা। পূর্বকণ্ঠ কথা বলে বাঙালির আত্মপ্রত্যয়ী আহ্বান ও ত্যাগে অর্জিত স্বাধীনতার। কথা বলে স্বাধীনতার চেতনায় উদ্বুদ্ধ হতে। ছড়িয়ে দিতে এ চেতনা দেশের প্রত্যেক কোণে কোণে। আমরা রাষ্ট্রের আইন কানুন, রীতিনীতির প্রতি শ্রদ্ধাশীল। দেশপ্রেম ও রাষ্ট্রীয় আইন বিরোধী এবং বাঙ্গালীর আবহমান কালের সামাজিক সহনশীলতার বিপক্ষে পূর্বকন্ঠ কখনো সংবাদ প্রকাশ করে না। আমরা সকল ধর্মমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল, কোন ধর্মমত বা তাদের অনুসারীদের অনুভূতিতে আঘাত দিয়ে আমরা কিছু প্রকাশ করি না। আমাদের সকল প্রচেষ্টা পাঠকের সংবাদ চাহিদাকে কেন্দ্র করে। তাই পাঠকের যে কোনো মতামত আমরা সাদরে গ্রহন করব।

খালিয়াজুরীতে ছাত্রকে বলাৎকারের অভিযোগে মাদ্রাসার সুপার গ্রেফতার

আপডেট : ০৬:৩০:২৯ অপরাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯

শফিকুল ইসলাম তালুকদার,খালিয়াজুরী (নেত্রকোণা) প্রতিনিধি ঃ

নেত্রকোণা জেলার খালিয়াজুরীতে ছাত্রকে বলাৎকারের অভিযোগে মাদ্রাসার সুপারকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। সোমবার গভীর রাতে খালিয়াজুরী থানার পুলিশ ওই মাদ্রাসা থেকে তাকে গ্রেফতার করেন।

এ ঘটনায় মঙ্গলবার দুপুরে থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে বলে জানান খালিয়াজুরী থানার ওসি। গ্রেফতারকৃত ওই মাদ্রাসার সুপারের নাম বশিরুল ইসলাম (৫৭), তিনি খালিয়াজুরী এবতেদায়ী কওমিয়া হাফিজিয়া ইসলামিয়া মাদ্রাসার সুপারেন্টেন্ড। সুপার ওই মাদ্রাসার ভিতরে একটি রুমে বসবাস করেন। খালিয়াজুরী থানার অফিসার ইনচার্জ এ.টি.এম মাহমুদুল হক জানান উক্ত মাদ্রাসার পরিচালনা পরিষদের সভাপতি গোলাম আবু ইছহাক থানায় এসে ১১ বছরের এক ছাত্রকে বলাৎকারের অভিযোগ করেন।

বলাৎকারের স্বীকার ওই ছাত্রে বাড়ী খালিয়াজুরী উপজেলার চাকুয়া ইউনিয়নের ফতুয়া গ্রামে। সে ওই মাদ্রাসার আবাসিক ছাত্র। তার অভিযোগের ভিত্তিতে রাতেই অভিযান চলিয়ে ওই মাদ্রাসা থেকে সুপার বশিরুল ইসলামকে গ্রেফতার করা হয়। বলাৎকারের স্বীকার ওই ছাত্র জানান সে মাদ্রাসার আবাসিক মেসে থেকে কিতাব বিভাগে পড়ে। গত রবিবার রাতে তাকে ডেকে নিয়ে মাদ্রাসার সুপার তার নিজ কক্ষে পা টিপতে দেন। এক পর্যায়ে সুপার তাকে জোর করে ধরে বলাৎকার করেন। বিষয়টি কাউকে বল্লে মাদ্রাসা থেকে বের করে দেওয়ার হুমকিও দেন তিনি।

ওই ছাত্র আরো জানান, গত সোমবার সে বিষয়টি তার এক শিক্ষককে প্রথমে জানায় পরে ওই শিক্ষক বিষয়টি মাদ্রাসার পরিচালনা কমিটির সভাপতি গোলাম আবু ইছহাককে জানালে, তিনি বিষয়টি কমিটির সাথে আলোচনা করে রাতে খালিয়াজুরী থানার ওসি’কে জানান। নাম প্রকাশ না করার শর্তে ওই মাদ্রাসার একজন শিক্ষক বলেন, অনেক ছাত্রের সাথে মাদ্রাসার সুপার এধরনের আচরণ করেছেন। তারা লজ্জায় বিষয়টি প্রকাশ করেননি।

মাদ্রাসার আরেক শিক্ষক বলেন গত ৬মাস আগেও এক ছাত্রের সঙ্গে এধরনের অপকর্ম করেছেন। প্রতিবাদ করলে চাকুরীচ্যুত করা হবে এরকম হুমকি দেন। একারনে ভয়ে সুপারের বিরুদ্ধে কেউ মুখ খুলেননা। বিষয়টি জানাজানি হলে, ছাত্রের মা বাদী হয়ে খালিয়াজুরী থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। খালিয়াজুরী থানার ওসি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, এব্যপারে খালিয়াজুরী থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে।