নেত্রকোনা ০৯:১৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

কেন্দুয়ায় কন্যার মা হয়েছেন এক অজ্ঞাত পাগলী, শিশুর নাম রাখা হল ‘জয়ীতা’

  • আপডেট : ০৩:৪২:৪০ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯
  • ১২৭১ বার পঠিত

কে. এম. সাখাওয়াত হোসেন, নেত্রকোনা :

নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলায় কন্যার মা হয়েছে এক অজ্ঞাত পাগলী (১৮)। ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার (১৫ অক্টোবর) দিনগত মধ্যরাতে উপজেলার সান্দিকোনা ইউনিয়নের কেন্দুয়া-আঠারোবাড়ি সড়কের ফেরির মোড় এলাকায়। কন্যা শিশু জন্মদানকারী পাগলী ভালভাবে কথা বলতে পারে না।

কেন্দুয়া থানার ওসি মো. রাশেদুজ্জামান শিশুটির নাম রাখলেন ‘জয়ীতা’ এবং উন্নত চিকিৎসার জন্য বুধবার (১৬ অক্টোবর) দুপুরে মা ও শিশুটিকে নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার রাত আনুমানিক ১২টার দিকে কেন্দুয়া উপজেলার সান্দিকোনা ইউনিয়নের ফেরিরমোড় এলাকার জাহিদ হাসান জনির মনোহারি দোকানে এসে পানি খেতে চায় অজ্ঞাত পাগলী। পানি খাওয়ার পর পাগলী চলে যাওয়ার কিছুদুর যেতেই তার পেটে প্রচন্ড ব্যাথা অনুভুত হয়। তার গায়ে একটি ওড়না ছাড়া কিছুই ছিলনা। এর কিছুক্ষণ পর সে একটি ফুটফুটে কন্যা শিশু প্রসব করেন।

ওই এলাকার দোকানদার জাহিদ হাসান জনি জানায়, এ ঘটনাটি দেখার পর আমার মাকে ডাক দেই পাগলীকে সাহায্য করার জন্য। তখন আমার মা আসমা খাতুন এসে তাকে সাহায্য করে এবং শিশুটিকে সেবা শুশ্রুষা করতে থাকে এবং প্রায় ঘন্টা খানেক পরে আমার বড় ভাই পাগলী ও শিশুটিকে কেন্দুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। পরে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

এব্যাপারে কেন্দুয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. রাশেদুজ্জামান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, বর্তমানে শিশু ও মা সুস্থ্য রয়েছে। শিশুটির নাম ‘জয়ীতা’ রাখা হয়েছে। কোন সমস্যা না হয় সেদিকে খেয়াল রাখা ও উন্নত চিকিৎসার জন্য মা ও শিশুটিকে বুধবার দুপুরে নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। তবে পাগলী এই এলাকার বাসিন্দা নয়। অন্য কোন এলাকা থেকে এসেছে বলে তিনি জানান।

আপনার মন্তব্য লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষণ করুন

প্রকাশক ও সম্পাদক সম্পর্কে-

শফিকুল আলম শাহীন

আমি একজন ওয়েব ডেভেলপার ও সাংবাদিক। আমি দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকায় পূর্বধলা উপজেলা সংবাদদাতা হিসেবে কর্মরত । সেইসাথে পূর্বকণ্ঠ অনলাইন প্রকাশনার সম্পাদক ও প্রকাশক। আমার বর্তমান ঠিকানা স্টেশন রোড, পূর্বধলা, নেত্রকোনা। আমি জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে ইতিবাচক। আমার ধর্ম ইসলাম। আমি করতে, দেখতে এবং অভিজ্ঞতা করতে পছন্দ করি এমন অনেক কিছু আছে। আমি আইটি সেক্টর নিয়ে বিভিন্ন এক্সপেরিমেন্ট করতে পছন্দ করি। যেমন ওয়েব পেজ তৈরি করা, বিভিন্ন অ্যাপ তৈরি করা, রেডিও স্টেশন তৈরি করা, অনলাইন সংবাদপত্র তৈরি করা ইত্যাদি। প্রয়োজনে: ০১৭১৩৫৭৩৫০২

কেন্দুয়ায় কন্যার মা হয়েছেন এক অজ্ঞাত পাগলী, শিশুর নাম রাখা হল ‘জয়ীতা’

আপডেট : ০৩:৪২:৪০ অপরাহ্ন, বুধবার, ১৬ অক্টোবর ২০১৯

কে. এম. সাখাওয়াত হোসেন, নেত্রকোনা :

নেত্রকোনার কেন্দুয়া উপজেলায় কন্যার মা হয়েছে এক অজ্ঞাত পাগলী (১৮)। ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার (১৫ অক্টোবর) দিনগত মধ্যরাতে উপজেলার সান্দিকোনা ইউনিয়নের কেন্দুয়া-আঠারোবাড়ি সড়কের ফেরির মোড় এলাকায়। কন্যা শিশু জন্মদানকারী পাগলী ভালভাবে কথা বলতে পারে না।

কেন্দুয়া থানার ওসি মো. রাশেদুজ্জামান শিশুটির নাম রাখলেন ‘জয়ীতা’ এবং উন্নত চিকিৎসার জন্য বুধবার (১৬ অক্টোবর) দুপুরে মা ও শিশুটিকে নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে বলে তিনি জানান।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার রাত আনুমানিক ১২টার দিকে কেন্দুয়া উপজেলার সান্দিকোনা ইউনিয়নের ফেরিরমোড় এলাকার জাহিদ হাসান জনির মনোহারি দোকানে এসে পানি খেতে চায় অজ্ঞাত পাগলী। পানি খাওয়ার পর পাগলী চলে যাওয়ার কিছুদুর যেতেই তার পেটে প্রচন্ড ব্যাথা অনুভুত হয়। তার গায়ে একটি ওড়না ছাড়া কিছুই ছিলনা। এর কিছুক্ষণ পর সে একটি ফুটফুটে কন্যা শিশু প্রসব করেন।

ওই এলাকার দোকানদার জাহিদ হাসান জনি জানায়, এ ঘটনাটি দেখার পর আমার মাকে ডাক দেই পাগলীকে সাহায্য করার জন্য। তখন আমার মা আসমা খাতুন এসে তাকে সাহায্য করে এবং শিশুটিকে সেবা শুশ্রুষা করতে থাকে এবং প্রায় ঘন্টা খানেক পরে আমার বড় ভাই পাগলী ও শিশুটিকে কেন্দুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। পরে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করে চিকিৎসা দেয়া হয়েছে।

এব্যাপারে কেন্দুয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. রাশেদুজ্জামান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, বর্তমানে শিশু ও মা সুস্থ্য রয়েছে। শিশুটির নাম ‘জয়ীতা’ রাখা হয়েছে। কোন সমস্যা না হয় সেদিকে খেয়াল রাখা ও উন্নত চিকিৎসার জন্য মা ও শিশুটিকে বুধবার দুপুরে নেত্রকোনা আধুনিক সদর হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। তবে পাগলী এই এলাকার বাসিন্দা নয়। অন্য কোন এলাকা থেকে এসেছে বলে তিনি জানান।