রবিবার ১৭ই অক্টোবর, ২০২১ খ্রিস্টাব্দ | ১লা কার্তিক, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ

কুষ্টিয়ায় ২১তম কাজী আরেফ আহমেদ হত্যা দিবস পালিত

নজরুল ইসলাম মুকুল :  |  আপডেট ৯:০৭ পূর্বাহ্ণ | সোমবার, ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০ | প্রিন্ট  | 241

কুষ্টিয়ায় ২১তম কাজী আরেফ আহমেদ হত্যা দিবস পালিত

মহান মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক ও স্বাধীন বাংলার পতাকা রূপকার নিউক্লিয়াস সদস্য সন্ত্রাস ও সাম্প্রদায়িকতামুক্ত দেশ গড়ার স্বপ্নদ্রষ্টা জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জাসদ’র প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি কাজী আরেফসহ ৫জাসদ নেতাকে হত্যা দায়ে মৃত্যুদন্ড প্রাপ্ত পলাতক আসামীদের গ্রেফতার ও রায় কার্যকরের দাবিতে নৃশংস এই হত্যাকান্ডের ২১তম দিবস পালিত হয়েছে।

রবিবার বিকেল সাড়ে ৩টায় ১৯৯৯ সালের ১৬ ফেব্রæয়ারী সংগঠিত নৃশংস এই হত্যা দিবস স্মরণে কাজী আরেফ স্মৃতি সংসদের আয়োজনে এবং সংসদের সাধারণ সম্পাদক কারশেদ আলমের সভাপতিত্বে কুষ্টিয়া পৌরসভা বিজয় উল্লাস চত্বরে শিশু কিশোর চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগিতা ও স্মরণ সভা অনুষ্ঠিত হয়।


স্মরণ সভায় বক্তব্য রাখেন, কাজী আরেফ’র রণাঙ্গনের সহযোদ্ধা বৃহত্তর কুষ্টিয়ায় স্বাধীন বাংলার প্রথম পতাকা উত্তোলনকারী বীর মুক্তিযোদ্ধা এ্যাড. আব্দুল জলিল, জাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল আলীম স্বপন, সম্মিলিত সামাজিক আন্দোলনের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা নজরুল ইসলাম, জেলা জাসদ সভাপতি গোলাম মহসিন, সিপিবি কুষ্টিয়ার সাবেক সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা রফিকুল ইসলাম, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি ফজলুল হক বুলবুল, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব কনক চৌধুরী ও শাহীন সরকার, জাসদ কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মোহাম্মদ আব্দুল্লাহ, কেন্দীয় নেতা শরিফুল কবীর স্বপন, জেলা জাসদের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জিল্লুর রহমান, লেখক ও কবি ডা. তাজ উদ্দিন, লেখক আব্দুল আজিজ, মিরপুর জাাসদ নেতা আহাম্মদ আলী, সদর উপজেলা জাসদ সভাপতি আমিরুল ইসলাম মকলু, সাবেক ছাত্রনেতা রাশিব রহমান, খোসকা উপজেলা জাসদ নেতা সাইফুজ্জামান রুবেল যুব নেতা সাইফুল ইসলাম পিন্টু। অনুষ্ঠান পরিচালনায় ছিলেন মাহবুব হাসান।

এ সময় বক্তারা বলেন, ১৯৯৯ সালে ১৬ ফেব্রæয়ারী তৎকালীন সন্ত্রাস কবলিত রক্তাক্ত জনপদ খ্যাত কুষ্টিয়ার দৌলতপুর উপজেলার আড়িয়া ইউনিয়নের কালিদাসপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয় মাঠে এক সন্ত্রাস বিরোধী সমাবেশ চলাকালে প্রকাশ্যে সন্ত্রাসীরা মহান মুক্তিযুদ্ধের এই সংগঠক জাতীয় নেতা কাজী আরেফ আহামেদসহ জেলা জাসদের সভাপতি বীরমুক্তিযুদ্ধা লোকমান হোসেন,সাধারন সম্পাদক উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান বীর মুক্তিযুদ্ধা এ্যাডঃ ইয়াকুব আলী,স্থানীয় নেতা ইসরাইল হোসেন তফসের ও শমসের মন্ডল ৫জাসদ নেতাকে ব্রাশফায়ার করে হত্যাকরে।

নৃশংস এই হত্যাকান্ড এঘটনায় তৎকালীন দৌলতপুর থানার ওসি ইসাহক আলী বাদী হয়ে করা হত্যা মামলাটি নানা ঘাত-প্রতিঘাত ও বাধা-বিপত্তি পেরিয়ে তদন্ত শেষে জড়িত অভিযোগে ২৯ আসামীর বিরুদ্ধে চার্জ গঠন এবং বিচার কার্যক্রম সম্পন্ন হয় আদালতে। ২০০৪ সালের ৩০ আগষ্ট আদালত ১০ জনের মৃত্যুদন্ড এবং ১২ জনের যাবজ্জীবন কারাদন্ডাদেশ দেন। রায় পরবর্তীতে নি¤œ ও উচ্চ আদালতে সকল বিচারিক বিধি সম্পন্ন করে ২০০৮ সালে শুধুমাত্র ৯জনের মৃত্যুদন্ডাদেশ বহাল রেখে বাকীদের খালাস দেন উচ্চ আদালত। এই ৯ জনের মধ্যে জামিনে থেকে অদ্যবধি ৫জন পলাতক থাকলেও ২০১৬ সালের ৮ জানুয়ারীতে কারান্তরীন ৩আসামীর মৃত্যুদন্ড কার্যকর হয় এবং এরপূর্বে অসুস্থ্য হয়ে কারাগারেই ১আসামীর মৃত্যু হয়। দন্ডপ্রাপ্ত পলাতক আসামীরা হলেন- মান্নাস মোল্লা, জালাল উদ্দিন ওরফে বাসার, বাকের, রওশন এবং জীবন।

দন্ডপ্রাপ্ত এসব পলাতক আসমীরা পাশর্^বর্তী ভারতে অবস্থান করেন এবং মাঝে মধ্যেই সীমান্ত পার হয়ে এসে পরিবারের সাথে দেখা করেন এবং নানা অপরাধ সংগঠনের মাধ্যমে অর্থ সংগ্রহ করে আবার ভারতে ফিরে যান বলে অভিযোগ ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী স্বাক্ষী ও আরেফ স্মৃতি সংসদের সভাপতি কারশেদ আলমসহ ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার ও নিহত নেতৃবৃন্দের রাজনৈতিক সহযোদ্ধাদের। অবিলম্বে এসব আসামীদের গ্রেফতার ও রায় কর্যকরের দাবি তাদের।

কাজী আরেফ’র রণাঙ্গনের সহযোদ্ধা বৃহত্তর কুষ্টিয়ায় স্বাধীন বাংলার প্রথম পতাকা উত্তোলনকারী বীর মুক্তিযোদ্ধা এ্যাড. আব্দুল জলিল বলেন,মুক্তিযুদ্ধের সহযোদ্ধা হিসেবে একজন বজ্রমুষ্ঠি আদর্শের প্রতীক হিসেবে সাথে পেয়ে কুষ্টিয়ার সকল বীরযোদ্ধা গর্ববোধ করতেন। এমন এক সহযোদ্ধাকে হারিয়ে সারা দেশবাসীর ন্যায় কুষ্টিয়াবাসীও ব্যথিত হয়েছেন। জেলাবাসী এই নির্মম হত্যাযজ্ঞের একটা ন্যায় বিচার কামনা করেছিল যা ইতোমধ্যে তিনজন আসামীর দন্ডকার্যকরের মধ্যদিয়ে জেলাবাসীকে আশান্বিত করেছে। সেই সাথে কিছু অপূর্ণতার বেদনাও রয়েছে এই হত্যাকান্ডের মূল পরিকল্পনাকারীরা আজও পর্যন্ত ধরা ছোয়ার বাইরে রয়ে গেছে এবং দন্ডপ্রাপ্ত ৫ আসামী এখনও গ্রেফতার এড়িয়ে চলছেন।

শেয়ার করুন..

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement
এক ক্লিকে বিভাগের খবর

আর্কাইভ

শনি রবি সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র
 
১০১১১২১৩১৪১৫
১৬১৭১৮১৯২০২১২২
২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
৩০৩১  
ঘোষনা : আমাদের পূর্বকন্ঠ ওয়েবসাইটে প্রবেশ করার জন্য আপনাকে স্বাগতম। আপনার আশপাশে ঘটে যাওয়া খবরা খবর জানাতে আমাদের ফোন করুন-০১৭১৩৫৭৩৫০২ এই নাম্বারে ☎ গুরুত্বপূর্ণ নাম্বার সমূহ : ☎ জরুরী সেবা : ৯৯৯ ☎ নেত্রকোনা ফায়ার স্টেশন: ০১৭৮৯৭৪৪২১২☎ জেলা প্রশাসক ,নেত্রকোনা:০১৩১৮-২৫১৪০১ ☎ পুলিশ সুপার,নেত্রকোনা: ০১৩২০১০৪১০০☎ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার, সদর সার্কেল : ০১৩২০১০৪১৪৫ ☎ ইউএনও,পূর্বধলা : ০১৭৯৩৭৬২১০৮☎ ওসি পূর্বধলা : ০১৩২০১০৪৩১৫ ☎ শ্যামগঞ্জ পুলিশ তদন্ত কেন্দ্র : ০১৩২০১০৪৩৩৩ ☎ ওসি শ্যামগঞ্জ হাইওয়ে থানা : ০১৩২০১৮২৮২৬ ☎ উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা, পূর্বধলা: ০১৭০০৭১৭২১২/০৯৫৩২৫৬১০৬ ☎ উপজেলা সমাজসেবা অফিসার, পূর্বধলা : ০১৭১৮৩৮৭৫৮৭/০১৭০৮৪১৫০২২ ☎ উপজেলা মৎস্য অফিসার, পূর্বধলা : ০১৫১৫-৬১৪৯২১ ☎ উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তা, পূর্বধলা : ০১৯৯০-৭০৩০২০ ☎ উপজেলা প্রাণি সম্পদ অফিসার, পূর্বধলা : ০১৭১৮-৭২৮২৯৪ ☎ উপজেলা প্রকৌশলী (এলজিইডি) পূর্বধলা :০১৭০৮-১৬১৪৫৭ ☎ উপজেলা আনসার ভিডিপি অফিসার, পূর্বধলা : ০১৯১৪-৯১৯৯৩৮ ☎ উপ-সহকারি প্রকৌশলী, জনস্বাস্থ্য প্রকৌশল অফিস, পূর্বধলা : ০১৯১৬-৮২৬৬৬৮ ☎ উপজেলা যুব উন্নয়ন অফিসার, পূর্বধলা : ০১৭১১-৭৮৯৭৯৮ ☎ উপজেলা কৃষি অফিসার, পূর্বধলা : ০১৭১৬-৭৯৮৯৪৬ ☎ উপজেলা শিক্ষা অফিসার, পূর্বধলা : ০১৭১৫-৪৭৪২৯৬ ☎ উপজেলা সমবায় অফিসার, পূর্বধলা : ০১৭১৭-০৪৩৬৩৯ ☎ সম্পাদক পূর্বকন্ঠ ☎ ০১৭১৩৫৭৩৫০২ ☎
মোঃ শফিকুল আলম শাহীন সম্পাদক ও প্রকাশক
পূর্বকণ্ঠ ২০১৬ সালে তথ্য অধিদপ্তরে নিবন্ধনের জন্য আবেদিত।
বার্তা ও সম্পাদকীয় কার্যালয়

স্টেশন রোড, পূর্বধলা, নেত্রকোনা।

হেল্প লাইনঃ +৮৮০৯৬৯৬৭৭৩৫০২

E-mail: info@purbakantho.com