নেত্রকোনা ০৫:২৫ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ২৩ এপ্রিল ২০২৪, ৯ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কুষ্টিয়ায় বরাদ্দ প্রাপ্ত প্লট পাওয়ার দাবিতে মানববন্ধন

  • আপডেট : ০৩:৫১:৩৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৯
  • ১৯৪

নজরুল ইসলাম মুকুল, কুষ্টিয়া \ কুষ্টিয়ায় জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষ কতৃক বরাদ্দ প্রাপ্ত প্লট মালিকরা প্লট বুঝিয়া পাওয়ার দাবিতে মানব বন্ধন করেছে। রবিবার বেলা ১২টায় হাউজিং এলাকায় জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের কার্যালয়ের সামনে এই কর্মসূচী পালিত হয়। যথারীতি প্রক্রিয়ায় প্রাপ্ত প্লটের সমুদয় টাকা পরিশোধ করে রেজিষ্ট্রি দলিল মূলে তার নাম পত্তনসহ হালনাগাদ ভুমি কর পরিশোধ করেও প্রাপ্ত প্লটের দখল পাচ্ছেন না বলে তাদের অভিযোগ।

প্লট প্রাপ্ত মিজানুর রহমান বলেন, জামানতের টাকাসহ আবেদন করার পর গৃহায়ন কতৃপক্ষের লটারিতে ৪র্থ প্রকল্পের একটি প্লট গত বছর আমি পায়। শর্তানুযায়ী কিস্তিসহ সমুদয় টাকা পরিশোধ করলে কর্তৃপক্ষ রেজিষ্ট্রি দলিল করে দেন। ইতোমধ্যে নিজ নামে নাম পত্তনসহ হালনাগাদ খাজনাও পরিশোধ করেছি। সারা জীবনের সঞ্চিত টাকায় কেনা এই জমিতে একটু মাথা গোঁজার ঠায় করতে প্লটটি বুঝিয়ে দেয়ার জন্য অফিসে ঘুরে ঘুরে পায়ের তলা ক্ষয় হয়ে গেলো। এখনও প্লট পাচ্ছিনা।

সামিনা খাতুন বলেন, নিজের গয়না, বাড়ির গরু/ছাগল বিক্রী করে এবং উচ্চহারের সুদে ঋণ নিয়ে প্রাপ্ত প্লটের টাকা শোধ করেও জমি পাচ্ছেন না গত এক বছর ধরে। কে বা কারা নাকি আমার বি বøকের ৯২নং প্লটের জমিতে নির্মাণ কাজ করছে। আমি এখন একুল-ওকুল হারিয়ে পথের ফকির।

জাতীয় গৃহায়ণ কর্তৃপক্ষ কুষ্টিয়ার উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী সৈয়দ আমিনুল ইসলাম জানালেন, মহামান্য হাইকোর্টের স্থগিতাদেশ থাকার পরও হঠাৎ করে জেলা পরিষদের লোকজন বরাদ্দ দেয়া প্লটের জমিতে বিধি লংঘন ও জবর দখল করে অবকাঠামো নির্মান শুরু করায় প্লট গ্রাহকদের প্লট বুঝিয়ে দেয়া যাচ্ছে না। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট সদর দপ্তরে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে।

আপনার মন্তব্য লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষণ করুন

প্রকাশক ও সম্পাদক সম্পর্কে-

আমি মো. শফিকুল আলম শাহীন। আমি একজন ওয়েব ডেভেলপার ও সাংবাদিক । আমি পূর্বকণ্ঠ অনলাইন প্রকাশনার সম্পাদক ও প্রকাশক। আমি জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে ইতিবাচক। আমি করতে, দেখতে এবং অভিজ্ঞতা করতে পছন্দ করি এমন অনেক কিছু আছে। আমি আইটি সেক্টর নিয়ে বিভিন্ন এক্সপেরিমেন্ট করতে পছন্দ করি। যেমন ওয়েব পেজ তৈরি করা, বিভিন্ন অ্যাপ তৈরি করা, অনলাইন রেডিও স্টেশন তৈরি করা, অনলাইন সংবাদপত্র তৈরি করা ইত্যাদি। আমাদের প্রকাশনা “পূর্বকন্ঠ” স্বাধীনতার চেতনায় একটি নিরপেক্ষ জাতীয় অনলাইন । পাঠক আমাদের সবচেয়ে বড় অনুপ্রেরনা। পূর্বকণ্ঠ কথা বলে বাঙালির আত্মপ্রত্যয়ী আহ্বান ও ত্যাগে অর্জিত স্বাধীনতার। কথা বলে স্বাধীনতার চেতনায় উদ্বুদ্ধ হতে। ছড়িয়ে দিতে এ চেতনা দেশের প্রত্যেক কোণে কোণে। আমরা রাষ্ট্রের আইন কানুন, রীতিনীতির প্রতি শ্রদ্ধাশীল। দেশপ্রেম ও রাষ্ট্রীয় আইন বিরোধী এবং বাঙ্গালীর আবহমান কালের সামাজিক সহনশীলতার বিপক্ষে পূর্বকন্ঠ কখনো সংবাদ প্রকাশ করে না। আমরা সকল ধর্মমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল, কোন ধর্মমত বা তাদের অনুসারীদের অনুভূতিতে আঘাত দিয়ে আমরা কিছু প্রকাশ করি না। আমাদের সকল প্রচেষ্টা পাঠকের সংবাদ চাহিদাকে কেন্দ্র করে। তাই পাঠকের যে কোনো মতামত আমরা সাদরে গ্রহন করব।

কুষ্টিয়ায় বরাদ্দ প্রাপ্ত প্লট পাওয়ার দাবিতে মানববন্ধন

আপডেট : ০৩:৫১:৩৯ অপরাহ্ন, সোমবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০১৯

নজরুল ইসলাম মুকুল, কুষ্টিয়া \ কুষ্টিয়ায় জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষ কতৃক বরাদ্দ প্রাপ্ত প্লট মালিকরা প্লট বুঝিয়া পাওয়ার দাবিতে মানব বন্ধন করেছে। রবিবার বেলা ১২টায় হাউজিং এলাকায় জাতীয় গৃহায়ন কর্তৃপক্ষের কার্যালয়ের সামনে এই কর্মসূচী পালিত হয়। যথারীতি প্রক্রিয়ায় প্রাপ্ত প্লটের সমুদয় টাকা পরিশোধ করে রেজিষ্ট্রি দলিল মূলে তার নাম পত্তনসহ হালনাগাদ ভুমি কর পরিশোধ করেও প্রাপ্ত প্লটের দখল পাচ্ছেন না বলে তাদের অভিযোগ।

প্লট প্রাপ্ত মিজানুর রহমান বলেন, জামানতের টাকাসহ আবেদন করার পর গৃহায়ন কতৃপক্ষের লটারিতে ৪র্থ প্রকল্পের একটি প্লট গত বছর আমি পায়। শর্তানুযায়ী কিস্তিসহ সমুদয় টাকা পরিশোধ করলে কর্তৃপক্ষ রেজিষ্ট্রি দলিল করে দেন। ইতোমধ্যে নিজ নামে নাম পত্তনসহ হালনাগাদ খাজনাও পরিশোধ করেছি। সারা জীবনের সঞ্চিত টাকায় কেনা এই জমিতে একটু মাথা গোঁজার ঠায় করতে প্লটটি বুঝিয়ে দেয়ার জন্য অফিসে ঘুরে ঘুরে পায়ের তলা ক্ষয় হয়ে গেলো। এখনও প্লট পাচ্ছিনা।

সামিনা খাতুন বলেন, নিজের গয়না, বাড়ির গরু/ছাগল বিক্রী করে এবং উচ্চহারের সুদে ঋণ নিয়ে প্রাপ্ত প্লটের টাকা শোধ করেও জমি পাচ্ছেন না গত এক বছর ধরে। কে বা কারা নাকি আমার বি বøকের ৯২নং প্লটের জমিতে নির্মাণ কাজ করছে। আমি এখন একুল-ওকুল হারিয়ে পথের ফকির।

জাতীয় গৃহায়ণ কর্তৃপক্ষ কুষ্টিয়ার উপ-বিভাগীয় প্রকৌশলী সৈয়দ আমিনুল ইসলাম জানালেন, মহামান্য হাইকোর্টের স্থগিতাদেশ থাকার পরও হঠাৎ করে জেলা পরিষদের লোকজন বরাদ্দ দেয়া প্লটের জমিতে বিধি লংঘন ও জবর দখল করে অবকাঠামো নির্মান শুরু করায় প্লট গ্রাহকদের প্লট বুঝিয়ে দেয়া যাচ্ছে না। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট সদর দপ্তরে উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে।