নেত্রকোনা ০২:০৯ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

কুষ্টিয়ার কুমারখালী গড়াই সেতুর নামকরণ করা হলো শহীদ গোলাম কিবরিয়া সেতু

  • আপডেট : ০৩:২৬:৪৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯
  • ৩৬৮

নজরুল ইসলাম মুকুল, কুষ্টিয়া :

রবিবার দুপুরে কুষ্টিয়ার কুমাখালীর বাস ষ্ট্যান্ডে অনুষ্ঠিত গড়াই সেতুর ভিত্তি প্রস্তর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও কুষ্টিয়া-৩ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য মাহবুব উল আলম হানিফ গড়াই সেতুর নাম শহীদ গোলাম কিবরিয়া সেতু নামকরণ ঘোষনা করেন। সেই সাথে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের যাতায়াত সুবিধার জন্য কুমারখালী থেকে নিয়মিত বিশ্ববিদ্যালয়ের বাস চলাচল করবে বলেও ঘোষনা করেন।

স্বাধীনতার ৪৮ বছর পর কুমারখালী উপজেলাবাসীর প্রাণের দাবী কুমারখালী-যদুবয়রা গড়াই সেতু নির্মানের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করায় আনন্দ আর উল্লাসে কুমারখালী যেন এক উৎসবে মেতে উঠে। বিএনপির শাসনামলে এই সেতু নির্মান নিয়ে নানা ছলচতুরী আর ধোকাবাজী করে জনগণের সাথে প্রতারনা আশ্রয় নিয়েছিল। জনগণের দাবীর মুখে সে সময় আজ কাল, এবছর ওবছর এই সেতু করা হবে বলে সাধারণ মানুষকে ধোকা দেয়া হয়। আওয়ামীলীগ রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় আসার পর কুমারখালী-যদুবয়রা সেতু নির্মানের ঘোষনা দেন। আজ সেই ঘোষনা বাস্তবায়ন করায় জনগন আনন্দ উল্লাসে ভেসেছে। ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন উপলক্ষে কুমারখালী বাস ষ্ট্যান্ডে স্মরণ কালের জনসভা অনুষ্ঠিত হয়।

সকাল থেকে হাজার হাজার মানুষ তাদের প্রাণের দাবী কুমারখালী-যদুবয়রা সেতুর ভিত্তি প্রস্তর উপলক্ষে জনসভায় যোগ দিতে আসে। মুহুর্তের মধ্যে জনসভাস্থল কানায় কানায় পরিপূর্ন হয়ে ছড়িয়ে পড়ে আসপাশের এলাকায়। পরিনত হয় জন সমুদ্রে। জান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

প্রচন্ড রদ্রের মধ্যেও জনসভাস্থল কোন নেতা-কর্মী বা সাধারণ জনগণ ত্যাগ করেননি। নেতা মাহবুব উল আলম হানিফ জনসভাস্থলে পৌছালে শ্লোগানে শ্লোগানে তাকে স্বাগত জানায়। অপেক্ষায় আছে কখন সেতুর নামকরণ ঘোষনা করা হবে। জনসভা থেকে প্রানের নেতা মাহবুব উল আলম হানিফ সেতুর নাম শহীদ গোলাম কিবরিয়া সেতু ঘোষনা করার সাথে সাথে ঢোল ডগর আর মানুষের করতালীতে সভাস্থল আনন্দে ভরে উঠে।

আপনার মন্তব্য লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষণ করুন

প্রকাশক ও সম্পাদক সম্পর্কে-

আমি মো. শফিকুল আলম শাহীন। আমি একজন ওয়েব ডেভেলপার ও সাংবাদিক । আমি পূর্বকণ্ঠ অনলাইন প্রকাশনার সম্পাদক ও প্রকাশক। আমি জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে ইতিবাচক। আমি করতে, দেখতে এবং অভিজ্ঞতা করতে পছন্দ করি এমন অনেক কিছু আছে। আমি আইটি সেক্টর নিয়ে বিভিন্ন এক্সপেরিমেন্ট করতে পছন্দ করি। যেমন ওয়েব পেজ তৈরি করা, বিভিন্ন অ্যাপ তৈরি করা, অনলাইন রেডিও স্টেশন তৈরি করা, অনলাইন সংবাদপত্র তৈরি করা ইত্যাদি। আমাদের প্রকাশনা “পূর্বকন্ঠ” স্বাধীনতার চেতনায় একটি নিরপেক্ষ জাতীয় অনলাইন । পাঠক আমাদের সবচেয়ে বড় অনুপ্রেরনা। পূর্বকণ্ঠ কথা বলে বাঙালির আত্মপ্রত্যয়ী আহ্বান ও ত্যাগে অর্জিত স্বাধীনতার। কথা বলে স্বাধীনতার চেতনায় উদ্বুদ্ধ হতে। ছড়িয়ে দিতে এ চেতনা দেশের প্রত্যেক কোণে কোণে। আমরা রাষ্ট্রের আইন কানুন, রীতিনীতির প্রতি শ্রদ্ধাশীল। দেশপ্রেম ও রাষ্ট্রীয় আইন বিরোধী এবং বাঙ্গালীর আবহমান কালের সামাজিক সহনশীলতার বিপক্ষে পূর্বকন্ঠ কখনো সংবাদ প্রকাশ করে না। আমরা সকল ধর্মমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল, কোন ধর্মমত বা তাদের অনুসারীদের অনুভূতিতে আঘাত দিয়ে আমরা কিছু প্রকাশ করি না। আমাদের সকল প্রচেষ্টা পাঠকের সংবাদ চাহিদাকে কেন্দ্র করে। তাই পাঠকের যে কোনো মতামত আমরা সাদরে গ্রহন করব।

ইরাকে সামরিক ঘাঁটিতে বিস্ফোরণ, হতাহত ৯

কুষ্টিয়ার কুমারখালী গড়াই সেতুর নামকরণ করা হলো শহীদ গোলাম কিবরিয়া সেতু

আপডেট : ০৩:২৬:৪৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯

নজরুল ইসলাম মুকুল, কুষ্টিয়া :

রবিবার দুপুরে কুষ্টিয়ার কুমাখালীর বাস ষ্ট্যান্ডে অনুষ্ঠিত গড়াই সেতুর ভিত্তি প্রস্তর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগ যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ও কুষ্টিয়া-৩ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য মাহবুব উল আলম হানিফ গড়াই সেতুর নাম শহীদ গোলাম কিবরিয়া সেতু নামকরণ ঘোষনা করেন। সেই সাথে ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র-ছাত্রীদের যাতায়াত সুবিধার জন্য কুমারখালী থেকে নিয়মিত বিশ্ববিদ্যালয়ের বাস চলাচল করবে বলেও ঘোষনা করেন।

স্বাধীনতার ৪৮ বছর পর কুমারখালী উপজেলাবাসীর প্রাণের দাবী কুমারখালী-যদুবয়রা গড়াই সেতু নির্মানের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করায় আনন্দ আর উল্লাসে কুমারখালী যেন এক উৎসবে মেতে উঠে। বিএনপির শাসনামলে এই সেতু নির্মান নিয়ে নানা ছলচতুরী আর ধোকাবাজী করে জনগণের সাথে প্রতারনা আশ্রয় নিয়েছিল। জনগণের দাবীর মুখে সে সময় আজ কাল, এবছর ওবছর এই সেতু করা হবে বলে সাধারণ মানুষকে ধোকা দেয়া হয়। আওয়ামীলীগ রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় আসার পর কুমারখালী-যদুবয়রা সেতু নির্মানের ঘোষনা দেন। আজ সেই ঘোষনা বাস্তবায়ন করায় জনগন আনন্দ উল্লাসে ভেসেছে। ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন উপলক্ষে কুমারখালী বাস ষ্ট্যান্ডে স্মরণ কালের জনসভা অনুষ্ঠিত হয়।

সকাল থেকে হাজার হাজার মানুষ তাদের প্রাণের দাবী কুমারখালী-যদুবয়রা সেতুর ভিত্তি প্রস্তর উপলক্ষে জনসভায় যোগ দিতে আসে। মুহুর্তের মধ্যে জনসভাস্থল কানায় কানায় পরিপূর্ন হয়ে ছড়িয়ে পড়ে আসপাশের এলাকায়। পরিনত হয় জন সমুদ্রে। জান চলাচল বন্ধ হয়ে যায়।

প্রচন্ড রদ্রের মধ্যেও জনসভাস্থল কোন নেতা-কর্মী বা সাধারণ জনগণ ত্যাগ করেননি। নেতা মাহবুব উল আলম হানিফ জনসভাস্থলে পৌছালে শ্লোগানে শ্লোগানে তাকে স্বাগত জানায়। অপেক্ষায় আছে কখন সেতুর নামকরণ ঘোষনা করা হবে। জনসভা থেকে প্রানের নেতা মাহবুব উল আলম হানিফ সেতুর নাম শহীদ গোলাম কিবরিয়া সেতু ঘোষনা করার সাথে সাথে ঢোল ডগর আর মানুষের করতালীতে সভাস্থল আনন্দে ভরে উঠে।