শনিবার ১৩ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৩০শে চৈত্র, ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

কুমারখালীতে স্ত্রীকে হত্যার পর স্বামীর আত্মহত্যা

 |  আপডেট ৩:২৮ অপরাহ্ণ | শুক্রবার, ১১ অক্টোবর ২০১৯ | প্রিন্ট  | 378

কুমারখালীতে স্ত্রীকে হত্যার পর স্বামীর আত্মহত্যা

নজরুল ইসলাম মুকুল, কুষ্টিয়া :

কুষ্টিয়ার কুমারখালী উপজেলার পান্টি ইউনিয়নের ভালুকা পূর্বাশা গ্রামে স্ত্রীকে হত্যার পর স্বামী আত্মহত্যা করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে।


এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, পান্টি ইউনিয়নের ভালুকা পূর্বাশা গ্রামের ভরতচন্দ্র মন্ডলের কন্যা সোহাগী রাণী মন্ডল (২২) এর সাথে ঝিনাইদহ জেলার শৈলকূপার ভবানীপুর ডিহি কবড়ী গ্রামের কোমল কুমার রায়ের পুত্র দিপুল কুমার রায় (৩১) এর ৩ মাস পূর্বে পারিবারিক ভাবে বিয়ে হয়।

এই বিয়ে সোহাগী রানীর অমতে হয়েছিল বলে তারা অভিমত ব্যক্ত করে। স্বামী স্ত্রীর মধ্যে যেকোন কারনে দাম্পত্য কলহ চলে আসছিল। পুজা উপলক্ষে দিপুল কুমার শ্বশুর বাড়িতে তার স্ত্রীকে নিয়ে বেড়াতে আসে এবং গতকাল ১০ সেপ্টেম্বর রাতে একসাথে খাবার খায়। সকালে ঘরের দরজা না খুললে সোহাগী রানীর চাচাতো ভাই লিপুসহ অন্যান্যরা দরজা ধাক্কাধাক্কি করে ভিতরে প্রবেশ করে দেখে দিপুল কুমার ঘরের ডাবের সাথে ঝুলে আছে এবং সোহাগী রানী বিছানায় মৃত অবস্থায় শুয়ে আছে।

ধারনা করা হচ্ছে বিপুল কুমার প্রথমে তার স্ত্রীকে মেরে পরবর্তীতে নিজেই ডাবের সাথে ঝুলে আত্মহত্যা করেছে।
কুষ্টিয়া অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সার্কেল নুরানী ফেরদৌস দিশা, কুমারখালী থানার অফিসার ইনচার্জ জাহাঙ্গীর আলম এবং চৌরঙ্গী তদন্ত ক্যাম্প ইনচার্জ স্বপন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।

তবে পুলিশ জানায় ঘটনা তদন্তের পর বুঝা যাবে কি ঘটেছে। হত্যা না আত্ম হত্যা করেছে। কুমারখালী থানা পুলিশ লাশ ইদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতাল মর্গে প্রেরন করেন।

এ বিভাগের সর্বাধিক পঠিত

advertisement
advertisement
advertisement
এক ক্লিকে বিভাগের খবর
মোঃ শফিকুল আলম শাহীন প্রকাশক ও সম্পাদক
বার্তা ও সম্পাদকীয় কার্যালয়

স্টেশন রোড, পূর্বধলা, নেত্রকোনা।

হেল্প লাইনঃ ০১৭১৩৫৭৩৫০২

E-mail: info@purbakantho.com