নেত্রকোনা ১২:২৭ অপরাহ্ন, শনিবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

কালিয়াকৈরে অপহরণের দায়ে দুই যুবক গ্রেফতার

গাজীপুরের কালিয়াকৈরে এক মোবাইল ব্যাবসায়িকে অপহরণের দায়ে দুই যুবককে গ্রেফতার করেছে কালিয়া কৈর থানা পুলিশ।

শুক্রবার (১৪ই ফেব্রয়ারি) বিকালে ঢাকা-টাংঙ্গাইল মহাসড়কের উপজেলার টেংলাবাড়ি হানিফ হোটেল এ্যান্ড রেস্টুরেন্টের নিকট থেকে তাদেরকে আটক করা হয়।

আটককৃতরা হলো,কালিয়াকৈর উপজেলার বলিয়াদি বকশি বাড়ি এলাকার মিন্টু বকশির ছেলে নিয়ন(২৪),নাওলা এলাকার সুচিন্দ্র সরকারের ছেলে দিপক সরকার।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্র জানায় ,অপহরন হওয়া ব্যাক্তি টাংঙ্গাইল জেলার মির্জাপুর উপজেলার রহিমপুর এলাকার জয়নাল আবেদীনের ছেলে সরুজ মিয়া স্থানীয় হামেদ মার্কেট বাজার এলাকায় মোবাইলের ইজি লোড, বিকাশের টাকা লেনদের ব্যবসা করেন।

১৩ই ফেব্রয়ারি সরুজের ফোনে অজ্ঞাত পরিচয় দিয়ে বলে আমি ম্যাক্স মোবাইল কোম্পানির অফিসার আপনার জন্য আমাদের কোম্পানীর পক্ষ থেকে বিশেষ পুরস্কার আছে । ১৪ই ফেব্রয়ারি আপনি কালিয়াকৈর রাবেয়া কিল্নিকের সামনে আসবেন। কথামত সরুজ মিয়া ওইদিন উক্ত স্থানে আসলে তাকে সাদা রংঙ্গে (ঢাকা মেট্রো গ ১৭-৭৫২১)প্রাইভেট কারে প্রবেশ করাইয়া ৪/৫জন অজ্ঞাত অপহনর কারির দলের সদস্যরা এলোপাথারি মরাদর করে। পরে গলায় দাড়ালো অস্ত্র ধরে ৩লক্ষ টাকা মুক্তিপন দাবি করে।

অপহরন হওয়া সরুজ বলে আমার কাছে এখন টাকা নেই, তবে আমার দোকানে টাকা আছে । টাকা দোকান থেকে এনে দিতে হবে। অপহরন কারিরা দোকানে যাওয়ার উদ্দ্যেশে রওনা দেন পরে তাদের ক্ষুদা লাগলে ঢাকা টাংঙ্গাইল মহাসড়কের হানিফ হোটেলে গাড়ির থামিয়ে খাবার ক্ষেতে গেলে ওই গাড়ির চালক বুজতে পাড়ে তাকে অপহরন করা হয়েছে।

ড্রাইভার কৌশলে থানা পুলিশকে খবর দিলে কালিয়াকৈর থানা পুলিশের চৌকশ পুলিশ সদস্য (এএসআই )দেলোয়ার হোসেন এবং ইমরান হোসেনসহ পুলিশ ফোর্স ঘটনাস্থল এসে অপহরন হওয়া সরুজ মিয়াকে উদ্ধার করে এবং ওই সময় দুই আসামিকে গ্রেফতার করে থানায় সোর্পদ করে।

এঘটনায় কালিয়াকৈর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আলমগীর হোসেন মজুমদার বলেন গ্রেফতার কৃতদের বিরুদ্ধে অপহরন এবং মুত্তিপন দাবি করার অপরাদে মামলা দায়ের করে শনিবার দুপুরে গাজীপুর জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে।

আপনার মন্তব্য লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষণ করুন

প্রকাশক ও সম্পাদক সম্পর্কে-

শফিকুল আলম শাহীন

আমি একজন ওয়েব ডেভেলপার ও সাংবাদিক। আমি দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকায় পূর্বধলা উপজেলা সংবাদদাতা হিসেবে কর্মরত । সেইসাথে পূর্বকণ্ঠ অনলাইন প্রকাশনার সম্পাদক ও প্রকাশক। আমার বর্তমান ঠিকানা স্টেশন রোড, পূর্বধলা, নেত্রকোনা। আমি জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে ইতিবাচক। আমার ধর্ম ইসলাম। আমি করতে, দেখতে এবং অভিজ্ঞতা করতে পছন্দ করি এমন অনেক কিছু আছে। আমি আইটি সেক্টর নিয়ে বিভিন্ন এক্সপেরিমেন্ট করতে পছন্দ করি। যেমন ওয়েব পেজ তৈরি করা, বিভিন্ন অ্যাপ তৈরি করা, রেডিও স্টেশন তৈরি করা, অনলাইন সংবাদপত্র তৈরি করা ইত্যাদি। প্রয়োজনে: ০১৭১৩৫৭৩৫০২

কালিয়াকৈরে অপহরণের দায়ে দুই যুবক গ্রেফতার

আপডেট : ০৮:১২:৫০ অপরাহ্ন, শনিবার, ১৫ ফেব্রুয়ারী ২০২০

গাজীপুরের কালিয়াকৈরে এক মোবাইল ব্যাবসায়িকে অপহরণের দায়ে দুই যুবককে গ্রেফতার করেছে কালিয়া কৈর থানা পুলিশ।

শুক্রবার (১৪ই ফেব্রয়ারি) বিকালে ঢাকা-টাংঙ্গাইল মহাসড়কের উপজেলার টেংলাবাড়ি হানিফ হোটেল এ্যান্ড রেস্টুরেন্টের নিকট থেকে তাদেরকে আটক করা হয়।

আটককৃতরা হলো,কালিয়াকৈর উপজেলার বলিয়াদি বকশি বাড়ি এলাকার মিন্টু বকশির ছেলে নিয়ন(২৪),নাওলা এলাকার সুচিন্দ্র সরকারের ছেলে দিপক সরকার।

স্থানীয় ও পুলিশ সূত্র জানায় ,অপহরন হওয়া ব্যাক্তি টাংঙ্গাইল জেলার মির্জাপুর উপজেলার রহিমপুর এলাকার জয়নাল আবেদীনের ছেলে সরুজ মিয়া স্থানীয় হামেদ মার্কেট বাজার এলাকায় মোবাইলের ইজি লোড, বিকাশের টাকা লেনদের ব্যবসা করেন।

১৩ই ফেব্রয়ারি সরুজের ফোনে অজ্ঞাত পরিচয় দিয়ে বলে আমি ম্যাক্স মোবাইল কোম্পানির অফিসার আপনার জন্য আমাদের কোম্পানীর পক্ষ থেকে বিশেষ পুরস্কার আছে । ১৪ই ফেব্রয়ারি আপনি কালিয়াকৈর রাবেয়া কিল্নিকের সামনে আসবেন। কথামত সরুজ মিয়া ওইদিন উক্ত স্থানে আসলে তাকে সাদা রংঙ্গে (ঢাকা মেট্রো গ ১৭-৭৫২১)প্রাইভেট কারে প্রবেশ করাইয়া ৪/৫জন অজ্ঞাত অপহনর কারির দলের সদস্যরা এলোপাথারি মরাদর করে। পরে গলায় দাড়ালো অস্ত্র ধরে ৩লক্ষ টাকা মুক্তিপন দাবি করে।

অপহরন হওয়া সরুজ বলে আমার কাছে এখন টাকা নেই, তবে আমার দোকানে টাকা আছে । টাকা দোকান থেকে এনে দিতে হবে। অপহরন কারিরা দোকানে যাওয়ার উদ্দ্যেশে রওনা দেন পরে তাদের ক্ষুদা লাগলে ঢাকা টাংঙ্গাইল মহাসড়কের হানিফ হোটেলে গাড়ির থামিয়ে খাবার ক্ষেতে গেলে ওই গাড়ির চালক বুজতে পাড়ে তাকে অপহরন করা হয়েছে।

ড্রাইভার কৌশলে থানা পুলিশকে খবর দিলে কালিয়াকৈর থানা পুলিশের চৌকশ পুলিশ সদস্য (এএসআই )দেলোয়ার হোসেন এবং ইমরান হোসেনসহ পুলিশ ফোর্স ঘটনাস্থল এসে অপহরন হওয়া সরুজ মিয়াকে উদ্ধার করে এবং ওই সময় দুই আসামিকে গ্রেফতার করে থানায় সোর্পদ করে।

এঘটনায় কালিয়াকৈর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আলমগীর হোসেন মজুমদার বলেন গ্রেফতার কৃতদের বিরুদ্ধে অপহরন এবং মুত্তিপন দাবি করার অপরাদে মামলা দায়ের করে শনিবার দুপুরে গাজীপুর জেল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে।