নেত্রকোনা ০৩:৫৯ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

কালিহাতীতে বালু উত্তোলনকে কেন্দ্র করে দু’গ্রুপের সংঘর্ষ

টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে নদী খনন প্রকল্পের আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দু’গ্রæপের সংঘর্ষে বাড়ীঘর ও দোকানপাট ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। এতে ৩ জন আহত হয়েছেন। ঘটনায় জড়িত থাকার সন্দেহে ৩ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এসময় বিভিন্ন ধরণের দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়। শনিবার দুপুরে উপজেলার গোহালিয়াবাড়ী বাজারে সংঘর্ষের ঘটনাটি ঘটে।

স্থানীয়রা জানান, বালু উত্তোলনকে কেন্দ্র করে স্থানীয় ইউপি সদস্য নুরুল ইসলাম ও সুলতান মেম্বারের সাথে দীর্ঘদিন যাবত দ্ব›দ্ব চলে আসছিল। নুরুল ইসলাম মেম্বার, বিএনপি নেতা মজিদ মন্ডল, আমিনুল, সোহেল, নোমানের নেতৃত্বে ওয়াজেদের বাড়িতে ভাঙচুর করে। অপরদিকে প্রতিপক্ষ আব্দুল আলীমের বাড়িতে ভাঙচুর করা হয়। শনিবার বেলা ১২টার দিকে দু’গ্রæপের মধ্যে গোহালিয়াবাজারে সংঘর্ষ বাধে। এ সময় স্বসস্ত্র হামলায় উভয় পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হন। আহতদের টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সংঘর্ষের খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে দু’পক্ষই পালিয়ে যায়। এসময় পুলিশ হামলাকারীদের বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে বিভিন্ন ধরণের দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করে। সংঘর্ষের ঘটনাকে কেন্দ্র করে গোহালিয়াবাড়ী বাজারে দোকানপাট বন্ধ রয়েছে। এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। যে কোন মূহুর্তে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা রয়েছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এ বিষয়ে গোহালিয়াবাড়ী ইউপি সদস্য সুলতান মাহমুদ বলেন, আমি এশিয়ান ড্রেজারের কাছ থেকে নদী খনন প্রকল্পের ৫’শ মিটার খননের কাজ নেই। স্থানীয় ইউনিয়ন বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মজিদের বাহিনী আমাদের খনন কাজে বাঁধা দেয়। প্রতিবাদ করায় তার দলবল নিয়ে আমাদের উপর হামলা চালায়। এসময় পুলিশ খবর পেয়ে তাদের বাড়ী থেকেই বিভিন্ন ধরণের দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করে।

এ বিষয়ে ইউপি সদস্য নুরুল ইসলাম বলেন, স্থানীয় চেয়ারম্যান হযরত আলী তালুকদারের লোকজন আমাদের বাড়ী ঘর ভাঙচুর করে। এ ব্যাপারে থানায় অভিযোগ করা হয়েছে।

কালিহাতী সার্কেলের এএসপি রাসেল মনির বলেন, নদী খননকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষ মুখোমুখি অবস্থান নেয়। পরে সেটি সংঘর্ষে রূপ নেয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। আশেপাশের বিভিন্ন বাড়িতে তল্লাশী চালিয়ে রামদা, ফালা, টেটা, সুরকীসহ লাঠিসোঠা উদ্ধার করা হয়। ঘটনাস্থল থেকে ৩ জনকে আটক করলেও মামলার তদন্তের স্বার্থে তাদের পরিচয় গোপন রাখা হচ্ছে।

আপনার মন্তব্য লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষণ করুন

প্রকাশক ও সম্পাদক সম্পর্কে-

শফিকুল আলম শাহীন

আমি একজন ওয়েব ডেভেলপার ও সাংবাদিক। আমি দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকায় পূর্বধলা উপজেলা সংবাদদাতা হিসেবে কর্মরত । সেইসাথে পূর্বকণ্ঠ অনলাইন প্রকাশনার সম্পাদক ও প্রকাশক। আমার বর্তমান ঠিকানা স্টেশন রোড, পূর্বধলা, নেত্রকোনা। আমি জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে ইতিবাচক। আমার ধর্ম ইসলাম। আমি করতে, দেখতে এবং অভিজ্ঞতা করতে পছন্দ করি এমন অনেক কিছু আছে। আমি আইটি সেক্টর নিয়ে বিভিন্ন এক্সপেরিমেন্ট করতে পছন্দ করি। যেমন ওয়েব পেজ তৈরি করা, বিভিন্ন অ্যাপ তৈরি করা, রেডিও স্টেশন তৈরি করা, অনলাইন সংবাদপত্র তৈরি করা ইত্যাদি। আমার সম্পাদনায় প্রকাশিত পূর্বকন্ঠ পত্রিকাটি স্বাধীনতার চেতনায় একটি নিরপেক্ষ জাতীয় অনলাইন । পাঠক আমাদের সবচেয়ে বড় অনুপ্রেরনা। পূর্বকণ্ঠ কথা বলে বাঙালির আত্মপ্রত্যয়ী আহ্বান ও ত্যাগে অর্জিত স্বাধীনতার। কথা বলে স্বাধীনতার চেতনায় উদ্বুদ্ধ হতে। ছড়িয়ে দিতে এ চেতনা দেশের প্রত্যেক কোণে কোণে। আমরা রাষ্ট্রের আইন কানুন, রীতিনীতির প্রতি শ্রদ্ধাশীল। দেশপ্রেম ও রাষ্ট্রীয় আইন বিরোধী এবং বাঙ্গালীর আবহমান কালের সামাজিক সহনশীলতার বিপক্ষে পূর্বকন্ঠ কখনো সংবাদ প্রকাশ করে না। আমরা সকল ধর্মমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল, কোন ধর্মমত বা তাদের অনুসারীদের অনুভূতিতে আঘাত দিয়ে আমরা কিছু প্রকাশ করি না। আমাদের সকল প্রচেষ্টা পাঠকের সংবাদ চাহিদাকে কেন্দ্র করে। তাই পাঠকের যে কোনো মতামত আমরা সাদরে গ্রহন করব। প্রয়োজনে: ০১৭১৩৫৭৩৫০২

কালিহাতীতে বালু উত্তোলনকে কেন্দ্র করে দু’গ্রুপের সংঘর্ষ

আপডেট : ০৭:১১:২৫ অপরাহ্ন, শনিবার, ৪ জানুয়ারী ২০২০

টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে নদী খনন প্রকল্পের আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে দু’গ্রæপের সংঘর্ষে বাড়ীঘর ও দোকানপাট ভাঙচুরের ঘটনা ঘটেছে। এতে ৩ জন আহত হয়েছেন। ঘটনায় জড়িত থাকার সন্দেহে ৩ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এসময় বিভিন্ন ধরণের দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করা হয়। শনিবার দুপুরে উপজেলার গোহালিয়াবাড়ী বাজারে সংঘর্ষের ঘটনাটি ঘটে।

স্থানীয়রা জানান, বালু উত্তোলনকে কেন্দ্র করে স্থানীয় ইউপি সদস্য নুরুল ইসলাম ও সুলতান মেম্বারের সাথে দীর্ঘদিন যাবত দ্ব›দ্ব চলে আসছিল। নুরুল ইসলাম মেম্বার, বিএনপি নেতা মজিদ মন্ডল, আমিনুল, সোহেল, নোমানের নেতৃত্বে ওয়াজেদের বাড়িতে ভাঙচুর করে। অপরদিকে প্রতিপক্ষ আব্দুল আলীমের বাড়িতে ভাঙচুর করা হয়। শনিবার বেলা ১২টার দিকে দু’গ্রæপের মধ্যে গোহালিয়াবাজারে সংঘর্ষ বাধে। এ সময় স্বসস্ত্র হামলায় উভয় পক্ষের অন্তত ১০ জন আহত হন। আহতদের টাঙ্গাইল জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সংঘর্ষের খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গেলে দু’পক্ষই পালিয়ে যায়। এসময় পুলিশ হামলাকারীদের বাড়িতে বাড়িতে গিয়ে বিভিন্ন ধরণের দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করে। সংঘর্ষের ঘটনাকে কেন্দ্র করে গোহালিয়াবাড়ী বাজারে দোকানপাট বন্ধ রয়েছে। এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। যে কোন মূহুর্তে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষের আশংকা রয়েছে। পরিস্থিতি স্বাভাবিক করতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এ বিষয়ে গোহালিয়াবাড়ী ইউপি সদস্য সুলতান মাহমুদ বলেন, আমি এশিয়ান ড্রেজারের কাছ থেকে নদী খনন প্রকল্পের ৫’শ মিটার খননের কাজ নেই। স্থানীয় ইউনিয়ন বিএনপি’র সাধারণ সম্পাদক আব্দুল মজিদের বাহিনী আমাদের খনন কাজে বাঁধা দেয়। প্রতিবাদ করায় তার দলবল নিয়ে আমাদের উপর হামলা চালায়। এসময় পুলিশ খবর পেয়ে তাদের বাড়ী থেকেই বিভিন্ন ধরণের দেশীয় অস্ত্র উদ্ধার করে।

এ বিষয়ে ইউপি সদস্য নুরুল ইসলাম বলেন, স্থানীয় চেয়ারম্যান হযরত আলী তালুকদারের লোকজন আমাদের বাড়ী ঘর ভাঙচুর করে। এ ব্যাপারে থানায় অভিযোগ করা হয়েছে।

কালিহাতী সার্কেলের এএসপি রাসেল মনির বলেন, নদী খননকে কেন্দ্র করে দু’পক্ষ মুখোমুখি অবস্থান নেয়। পরে সেটি সংঘর্ষে রূপ নেয়। পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। আশেপাশের বিভিন্ন বাড়িতে তল্লাশী চালিয়ে রামদা, ফালা, টেটা, সুরকীসহ লাঠিসোঠা উদ্ধার করা হয়। ঘটনাস্থল থেকে ৩ জনকে আটক করলেও মামলার তদন্তের স্বার্থে তাদের পরিচয় গোপন রাখা হচ্ছে।