নেত্রকোনা ০৪:৩৭ অপরাহ্ন, সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ২১ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ

একাদশীর চান-এ কে সরকার শাওন

  • আপডেট : ০৪:৪৪:৫১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯
  • ১৪৩৫ বার পঠিত

আমিও তো

পা ভিজিয়ে ছিলাম

বড়াল নদীর জলে,

লাল পদ্ম তুলে ছিলাম

চিনি ডাঙ্গার বিলে;

শুধু তাঁকে দেব বলে!

মনে বড় আশা ছিল

তাঁর সাথে হয় যদি দেখা,

কোননা কোন ছলে!

মরা মনে প্লাবন বইবে

চৈত্রের খরা ফেলে!

 

পদ্মার পাড়ে বালির বাঁধে

আশার গুড়ে বালি !

শাহমখ দুমের সবুজ মাঠে

ইদুরে কপালই খালি!

 

আগ দীঘার দীঘির তলে

জলমেপেছি বিফল;

বাঘার চরে উৎসব পার্কে

সময় ছিল খল!

 

শহরতলী ফুল বাগানে

ফুল কুড়ানোর নিষ্ফল !

বঙ্গোজ্জ্বলের অতল জলে

পাইনি খুঁজে তল!

 

বিল শাহের বাঁকে বাঁকে

ভাসিয়ে ছিলাম তরী!

জলের তলও ছল করেছে

পাইনি খুঁজে কড়ি!

 

সাইন পুকুরের শেষ বিকালটা

ছিলো অরণ্যের রোদন!

শূণ্যের মাঝে উড়ছি তবুও

হয়নি আমার বোধন!

 

মালঞ্চীতে ফুল শুকালো

দয়ারাম পুরনিঃষ্ঠুর নির্দয়!

আবদুলপুর রেল জাংশনে

প্রতীক্ষার হলোনা জয়!

 

খুঁজে খুঁজে নাকাল হলাম

বিশাল চলন বিলে!

হাজার জনের মাঝে

তাঁকে পাইনি পাটুলে!

 

অবশেষে মনের ঘরে

পেলাম একাদশীর চান;

চিরদিন একইরূপে,

অব্যয় অক্ষয় অম্লান!

 

কাব্যগ্রন্থঃনিরব কথপোকথন

 

আপনার মন্তব্য লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষণ করুন

প্রকাশক ও সম্পাদক সম্পর্কে-

শফিকুল আলম শাহীন

আমি একজন ওয়েব ডেভেলপার ও সাংবাদিক। আমি দৈনিক ইত্তেফাক পত্রিকায় পূর্বধলা উপজেলা সংবাদদাতা হিসেবে কর্মরত । সেইসাথে পূর্বকণ্ঠ অনলাইন প্রকাশনার সম্পাদক ও প্রকাশক। আমার বর্তমান ঠিকানা স্টেশন রোড, পূর্বধলা, নেত্রকোনা। আমি জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে ইতিবাচক। আমার ধর্ম ইসলাম। আমি করতে, দেখতে এবং অভিজ্ঞতা করতে পছন্দ করি এমন অনেক কিছু আছে। আমি আইটি সেক্টর নিয়ে বিভিন্ন এক্সপেরিমেন্ট করতে পছন্দ করি। যেমন ওয়েব পেজ তৈরি করা, বিভিন্ন অ্যাপ তৈরি করা, রেডিও স্টেশন তৈরি করা, অনলাইন সংবাদপত্র তৈরি করা ইত্যাদি। প্রয়োজনে: ০১৭১৩৫৭৩৫০২
জনপ্রিয়

একাদশীর চান-এ কে সরকার শাওন

আপডেট : ০৪:৪৪:৫১ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯

আমিও তো

পা ভিজিয়ে ছিলাম

বড়াল নদীর জলে,

লাল পদ্ম তুলে ছিলাম

চিনি ডাঙ্গার বিলে;

শুধু তাঁকে দেব বলে!

মনে বড় আশা ছিল

তাঁর সাথে হয় যদি দেখা,

কোননা কোন ছলে!

মরা মনে প্লাবন বইবে

চৈত্রের খরা ফেলে!

 

পদ্মার পাড়ে বালির বাঁধে

আশার গুড়ে বালি !

শাহমখ দুমের সবুজ মাঠে

ইদুরে কপালই খালি!

 

আগ দীঘার দীঘির তলে

জলমেপেছি বিফল;

বাঘার চরে উৎসব পার্কে

সময় ছিল খল!

 

শহরতলী ফুল বাগানে

ফুল কুড়ানোর নিষ্ফল !

বঙ্গোজ্জ্বলের অতল জলে

পাইনি খুঁজে তল!

 

বিল শাহের বাঁকে বাঁকে

ভাসিয়ে ছিলাম তরী!

জলের তলও ছল করেছে

পাইনি খুঁজে কড়ি!

 

সাইন পুকুরের শেষ বিকালটা

ছিলো অরণ্যের রোদন!

শূণ্যের মাঝে উড়ছি তবুও

হয়নি আমার বোধন!

 

মালঞ্চীতে ফুল শুকালো

দয়ারাম পুরনিঃষ্ঠুর নির্দয়!

আবদুলপুর রেল জাংশনে

প্রতীক্ষার হলোনা জয়!

 

খুঁজে খুঁজে নাকাল হলাম

বিশাল চলন বিলে!

হাজার জনের মাঝে

তাঁকে পাইনি পাটুলে!

 

অবশেষে মনের ঘরে

পেলাম একাদশীর চান;

চিরদিন একইরূপে,

অব্যয় অক্ষয় অম্লান!

 

কাব্যগ্রন্থঃনিরব কথপোকথন