নেত্রকোনা ০৭:২০ পূর্বাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ২৫ এপ্রিল ২০২৪, ১২ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

ইন্টারনেটের গতি বাড়াতে স্পেসএক্সের স্যাটেলাইট

  • আপডেট : ০৯:১০:২০ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৯
  • ২৭৮

দ্রুতগতির ইন্টারনেট সেবা নিশ্চিতে ৬০টি ‘স্টারলিংক’ স্যাটেলাইট (কৃত্রিম উপগ্রহ) মহাকাশে পাঠিয়েছে স্পেসএক্স।

সোমবার যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডার ‘কেপ ক্যানাভেরাল এয়ার ফোর্স স্টেশন’ থেকে ফ্যালকন ৯ রকেট ছোট আকারের স্যাটেলাইটগুলো বহন করে কক্ষপথে নিয়ে যায়।

এরপর কৃত্রিম উপগ্রহগুলো ভূপৃষ্ঠের কাছাকাছি কক্ষপথে ২৮০ কিলোমিটার উচ্চতায় স্থাপন করে। স্যাটেলাইটগুলো কক্ষপথে স্থাপন করে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে আটলান্টিক সমুদ্রে স্থাপিত ল্যান্ডিং প্যাডে ফিরে আসে ফ্যালকন ৯ রকেট।

স্পেসএক্সের প্রতিষ্ঠাতা ও সিইও ইলন মাস্ক বিশ্বের প্রত্যন্ত অঞ্চলে জন্য দ্রুতগতির ইন্টারনেট সেবা নিশ্চিত করতে ১২ হাজার স্যাটেলাইট স্থাপনের পরিকল্পনা হাতে নিয়েছেন।

এ লক্ষ্য বাস্তবায়নে প্রাথমিকভাবে ১২ হাজার স্যাটেলাইট স্থাপন করা হবে। তবে ইন্টারন্যাশনাল টেলিকমিউনিকেশন ইউনিয়নের (আইটিইউ) কাছ থেকে ইতিমধ্যে আরও ৩০ হাজার স্যাটেলাইট স্থাপনের অনুমতি চেয়েছে স্পেসএক্স।

স্টারলিংক স্যাটেলাইটগুলো আগামী বছরের মধ্যে কানাডা ও উত্তর আমেরিকায় দ্রুত ইন্টারনেট সেবা দেবে বলে জানিয়েছে স্পেসএক্স।

পুরো বিশ্বকে দ্রুতগতির ইন্টারনেটের আওতায় আনতে আরও ২৪ বার রকেটে করে স্যাটেলাইটগুলো মহাকাশে পাঠাতে হবে। স্পেসএক্স ও টেসলার সিইও ইলন মাস্ক ভবিষ্যতে ইন্টারনেট বাজারের একটি বিশাল অংশ নিয়ন্ত্রণ করতে চান।

তবে লন্ডনভিত্তিক স্টার্টআপ ওয়ানওয়েব ও ই-কমার্স জায়ান্ট অ্যামাজনও একই ধরনের উচ্চাভিলাষী প্রকল্প হাতে নিয়েছে।

আপনার মন্তব্য লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষণ করুন

প্রকাশক ও সম্পাদক সম্পর্কে-

আমি মো. শফিকুল আলম শাহীন। আমি একজন ওয়েব ডেভেলপার ও সাংবাদিক । আমি পূর্বকণ্ঠ অনলাইন প্রকাশনার সম্পাদক ও প্রকাশক। আমি জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে ইতিবাচক। আমি করতে, দেখতে এবং অভিজ্ঞতা করতে পছন্দ করি এমন অনেক কিছু আছে। আমি আইটি সেক্টর নিয়ে বিভিন্ন এক্সপেরিমেন্ট করতে পছন্দ করি। যেমন ওয়েব পেজ তৈরি করা, বিভিন্ন অ্যাপ তৈরি করা, অনলাইন রেডিও স্টেশন তৈরি করা, অনলাইন সংবাদপত্র তৈরি করা ইত্যাদি। আমাদের প্রকাশনা “পূর্বকন্ঠ” স্বাধীনতার চেতনায় একটি নিরপেক্ষ জাতীয় অনলাইন । পাঠক আমাদের সবচেয়ে বড় অনুপ্রেরনা। পূর্বকণ্ঠ কথা বলে বাঙালির আত্মপ্রত্যয়ী আহ্বান ও ত্যাগে অর্জিত স্বাধীনতার। কথা বলে স্বাধীনতার চেতনায় উদ্বুদ্ধ হতে। ছড়িয়ে দিতে এ চেতনা দেশের প্রত্যেক কোণে কোণে। আমরা রাষ্ট্রের আইন কানুন, রীতিনীতির প্রতি শ্রদ্ধাশীল। দেশপ্রেম ও রাষ্ট্রীয় আইন বিরোধী এবং বাঙ্গালীর আবহমান কালের সামাজিক সহনশীলতার বিপক্ষে পূর্বকন্ঠ কখনো সংবাদ প্রকাশ করে না। আমরা সকল ধর্মমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল, কোন ধর্মমত বা তাদের অনুসারীদের অনুভূতিতে আঘাত দিয়ে আমরা কিছু প্রকাশ করি না। আমাদের সকল প্রচেষ্টা পাঠকের সংবাদ চাহিদাকে কেন্দ্র করে। তাই পাঠকের যে কোনো মতামত আমরা সাদরে গ্রহন করব।
জনপ্রিয়

পূর্বধলায় রাষ্ট্রীয় মর্যাদায় মুক্তিযোদ্ধা আলাউদ্দিনের দাফন সম্পন্ন

ইন্টারনেটের গতি বাড়াতে স্পেসএক্সের স্যাটেলাইট

আপডেট : ০৯:১০:২০ অপরাহ্ন, রবিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৯

দ্রুতগতির ইন্টারনেট সেবা নিশ্চিতে ৬০টি ‘স্টারলিংক’ স্যাটেলাইট (কৃত্রিম উপগ্রহ) মহাকাশে পাঠিয়েছে স্পেসএক্স।

সোমবার যুক্তরাষ্ট্রের ফ্লোরিডার ‘কেপ ক্যানাভেরাল এয়ার ফোর্স স্টেশন’ থেকে ফ্যালকন ৯ রকেট ছোট আকারের স্যাটেলাইটগুলো বহন করে কক্ষপথে নিয়ে যায়।

এরপর কৃত্রিম উপগ্রহগুলো ভূপৃষ্ঠের কাছাকাছি কক্ষপথে ২৮০ কিলোমিটার উচ্চতায় স্থাপন করে। স্যাটেলাইটগুলো কক্ষপথে স্থাপন করে নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে আটলান্টিক সমুদ্রে স্থাপিত ল্যান্ডিং প্যাডে ফিরে আসে ফ্যালকন ৯ রকেট।

স্পেসএক্সের প্রতিষ্ঠাতা ও সিইও ইলন মাস্ক বিশ্বের প্রত্যন্ত অঞ্চলে জন্য দ্রুতগতির ইন্টারনেট সেবা নিশ্চিত করতে ১২ হাজার স্যাটেলাইট স্থাপনের পরিকল্পনা হাতে নিয়েছেন।

এ লক্ষ্য বাস্তবায়নে প্রাথমিকভাবে ১২ হাজার স্যাটেলাইট স্থাপন করা হবে। তবে ইন্টারন্যাশনাল টেলিকমিউনিকেশন ইউনিয়নের (আইটিইউ) কাছ থেকে ইতিমধ্যে আরও ৩০ হাজার স্যাটেলাইট স্থাপনের অনুমতি চেয়েছে স্পেসএক্স।

স্টারলিংক স্যাটেলাইটগুলো আগামী বছরের মধ্যে কানাডা ও উত্তর আমেরিকায় দ্রুত ইন্টারনেট সেবা দেবে বলে জানিয়েছে স্পেসএক্স।

পুরো বিশ্বকে দ্রুতগতির ইন্টারনেটের আওতায় আনতে আরও ২৪ বার রকেটে করে স্যাটেলাইটগুলো মহাকাশে পাঠাতে হবে। স্পেসএক্স ও টেসলার সিইও ইলন মাস্ক ভবিষ্যতে ইন্টারনেট বাজারের একটি বিশাল অংশ নিয়ন্ত্রণ করতে চান।

তবে লন্ডনভিত্তিক স্টার্টআপ ওয়ানওয়েব ও ই-কমার্স জায়ান্ট অ্যামাজনও একই ধরনের উচ্চাভিলাষী প্রকল্প হাতে নিয়েছে।