নেত্রকোনা ০২:০৪ অপরাহ্ন, রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৮ বৈশাখ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

আজ অমর একুশে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস

আজ ২১ ফেব্রুয়ারী মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। মায়ের ভাষার অধিকার প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে একুশে ফেব্রুয়ারী ছিল ঔপনিবেশিক প্রভুত্ব ও শাসন-শোষণের বিরুদ্ধে বাঙালীর প্রথম প্রতিরোধ এবং জাতীয় চেতনার প্রথম উন্মেষ।

১৯৫২ সালের এই দিনে রাষ্ট্রভাষা বাংলার দাবীতে দুর্বার আন্দোলনে সালাম, জব্বার, শফিক, বরকত, রফিকের রক্তের বিনিময়ে বাঙালী জাতি পায় মাতৃভাষার মর্যাদা এবং আর্থ-রাজনৈতিক প্রেরণা। তারই পথ ধরে শুরু হয় বাঙালী স্বাধীকার আন্দোলন এবং একাত্তরে নয় মাস পাকিস্তানি বাহিনীর বিরুদ্ধে সশস্ত্র যুদ্ধের মধ্য দিয়ে অর্জিত হয় স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশ।,

বস্তুত একুশে ফেব্রুয়ারী একদিকে শোকাবহ হলেও এর অন্যদিকে আছে গৌরবোজ্জ্বমধ্য দিয়ে জাতি একুশের মহান শহীদদের প্রতি জানাবে। বাঙালি জাতির চেতনা গঠনের পাঠশালা বলা হয় শহীদ মিনারকে। ‘৫২ এর ২১ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানি শাসকের বুলেট বাংলার বুকে গড়ে দেয় এই সম্মিলনী কেন্দ্র।,

রাষ্ট্রভাষা আন্দোলনের দাবানলের শিখা এখন আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের স্বীকৃতি নিয়ে প্রতি বছর হাজির হয় আমাদের সামনে। ভাষা আন্দোলনের প্রতীক হয়ে শহীদ মিনার দাঁড়িয়ে আছে এখন সারা দেশে, সারা বিশ্বে। ইউনেস্কো ১৯৯৯ সালে ঐতিহাসিক একুশের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ঘোষণার পর থেকে আন্তর্জাতিক পর্যায়েও দিবসটি পালিত হচ্ছে। ‘ভাষা দিবসের সেই পথ ধরেই আসে ১৯৭১।,

বাংলাদেশ। মায়ের ভাষা প্রতিষ্ঠার ২১ বছর পর স্বাধীন হয় মাতৃভূমি। বিশ্বে। ইউনেস্কো ১৯৯৯ সালে ঐতিহাসিক একুশের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ঘোষণার পর থেকে আন্তর্জাতিক পর্যায়েও দিবসটি পালিত হচ্ছে। ভাষা দিবসের সেই পথ ধরেই আসে ১৯৭১। ‘বাংলাদেশ।,

মায়ের ভাষা প্রতিষ্ঠার ২১ বছর পর স্বাধীন হয় মাতৃভূমি।রাষ্ট্রভাষা আন্দোলনের দাবানলের শিখা এখন আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের স্বীকৃতি নিয়ে প্রতি বছর হাজির হয় আমাদের সামনে। ভাষা আন্দোলনের প্রতীক হয়ে শহীদ মিনার দাঁড়িয়ে আছে এখন সারা দেশে, ‘সারা বিশ্বে।,

ইউনেস্কো ১৯৯৯ সালে ঐতিহাসিক একুশের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ঘোষণার পর থেকে আন্তর্জাতিক পর্যায়েও দিবসটি পালিত হচ্ছে। ভাষা দিবসের সেই পথ ধরেই আসে ১৯৭১। বাংলাদেশ। মায়ের ভাষা প্রতিষ্ঠার ২১ বছর পর স্বাধীন হয় মাতৃভূমি।,’

আপনার মন্তব্য লিখুন

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষণ করুন

প্রকাশক ও সম্পাদক সম্পর্কে-

আমি মো. শফিকুল আলম শাহীন। আমি একজন ওয়েব ডেভেলপার ও সাংবাদিক । আমি পূর্বকণ্ঠ অনলাইন প্রকাশনার সম্পাদক ও প্রকাশক। আমি জীবনের প্রতিটি ক্ষেত্রে ইতিবাচক। আমি করতে, দেখতে এবং অভিজ্ঞতা করতে পছন্দ করি এমন অনেক কিছু আছে। আমি আইটি সেক্টর নিয়ে বিভিন্ন এক্সপেরিমেন্ট করতে পছন্দ করি। যেমন ওয়েব পেজ তৈরি করা, বিভিন্ন অ্যাপ তৈরি করা, অনলাইন রেডিও স্টেশন তৈরি করা, অনলাইন সংবাদপত্র তৈরি করা ইত্যাদি। আমাদের প্রকাশনা “পূর্বকন্ঠ” স্বাধীনতার চেতনায় একটি নিরপেক্ষ জাতীয় অনলাইন । পাঠক আমাদের সবচেয়ে বড় অনুপ্রেরনা। পূর্বকণ্ঠ কথা বলে বাঙালির আত্মপ্রত্যয়ী আহ্বান ও ত্যাগে অর্জিত স্বাধীনতার। কথা বলে স্বাধীনতার চেতনায় উদ্বুদ্ধ হতে। ছড়িয়ে দিতে এ চেতনা দেশের প্রত্যেক কোণে কোণে। আমরা রাষ্ট্রের আইন কানুন, রীতিনীতির প্রতি শ্রদ্ধাশীল। দেশপ্রেম ও রাষ্ট্রীয় আইন বিরোধী এবং বাঙ্গালীর আবহমান কালের সামাজিক সহনশীলতার বিপক্ষে পূর্বকন্ঠ কখনো সংবাদ প্রকাশ করে না। আমরা সকল ধর্মমতের প্রতি শ্রদ্ধাশীল, কোন ধর্মমত বা তাদের অনুসারীদের অনুভূতিতে আঘাত দিয়ে আমরা কিছু প্রকাশ করি না। আমাদের সকল প্রচেষ্টা পাঠকের সংবাদ চাহিদাকে কেন্দ্র করে। তাই পাঠকের যে কোনো মতামত আমরা সাদরে গ্রহন করব।

ইরাকে সামরিক ঘাঁটিতে বিস্ফোরণ, হতাহত ৯

আজ অমর একুশে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস

আপডেট : ০৬:৪৯:৫৩ পূর্বাহ্ন, বুধবার, ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪

আজ ২১ ফেব্রুয়ারী মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস। মায়ের ভাষার অধিকার প্রতিষ্ঠার সংগ্রামে একুশে ফেব্রুয়ারী ছিল ঔপনিবেশিক প্রভুত্ব ও শাসন-শোষণের বিরুদ্ধে বাঙালীর প্রথম প্রতিরোধ এবং জাতীয় চেতনার প্রথম উন্মেষ।

১৯৫২ সালের এই দিনে রাষ্ট্রভাষা বাংলার দাবীতে দুর্বার আন্দোলনে সালাম, জব্বার, শফিক, বরকত, রফিকের রক্তের বিনিময়ে বাঙালী জাতি পায় মাতৃভাষার মর্যাদা এবং আর্থ-রাজনৈতিক প্রেরণা। তারই পথ ধরে শুরু হয় বাঙালী স্বাধীকার আন্দোলন এবং একাত্তরে নয় মাস পাকিস্তানি বাহিনীর বিরুদ্ধে সশস্ত্র যুদ্ধের মধ্য দিয়ে অর্জিত হয় স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশ।,

বস্তুত একুশে ফেব্রুয়ারী একদিকে শোকাবহ হলেও এর অন্যদিকে আছে গৌরবোজ্জ্বমধ্য দিয়ে জাতি একুশের মহান শহীদদের প্রতি জানাবে। বাঙালি জাতির চেতনা গঠনের পাঠশালা বলা হয় শহীদ মিনারকে। ‘৫২ এর ২১ ফেব্রুয়ারি পাকিস্তানি শাসকের বুলেট বাংলার বুকে গড়ে দেয় এই সম্মিলনী কেন্দ্র।,

রাষ্ট্রভাষা আন্দোলনের দাবানলের শিখা এখন আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের স্বীকৃতি নিয়ে প্রতি বছর হাজির হয় আমাদের সামনে। ভাষা আন্দোলনের প্রতীক হয়ে শহীদ মিনার দাঁড়িয়ে আছে এখন সারা দেশে, সারা বিশ্বে। ইউনেস্কো ১৯৯৯ সালে ঐতিহাসিক একুশের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ঘোষণার পর থেকে আন্তর্জাতিক পর্যায়েও দিবসটি পালিত হচ্ছে। ‘ভাষা দিবসের সেই পথ ধরেই আসে ১৯৭১।,

বাংলাদেশ। মায়ের ভাষা প্রতিষ্ঠার ২১ বছর পর স্বাধীন হয় মাতৃভূমি। বিশ্বে। ইউনেস্কো ১৯৯৯ সালে ঐতিহাসিক একুশের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ঘোষণার পর থেকে আন্তর্জাতিক পর্যায়েও দিবসটি পালিত হচ্ছে। ভাষা দিবসের সেই পথ ধরেই আসে ১৯৭১। ‘বাংলাদেশ।,

মায়ের ভাষা প্রতিষ্ঠার ২১ বছর পর স্বাধীন হয় মাতৃভূমি।রাষ্ট্রভাষা আন্দোলনের দাবানলের শিখা এখন আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসের স্বীকৃতি নিয়ে প্রতি বছর হাজির হয় আমাদের সামনে। ভাষা আন্দোলনের প্রতীক হয়ে শহীদ মিনার দাঁড়িয়ে আছে এখন সারা দেশে, ‘সারা বিশ্বে।,

ইউনেস্কো ১৯৯৯ সালে ঐতিহাসিক একুশের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস ঘোষণার পর থেকে আন্তর্জাতিক পর্যায়েও দিবসটি পালিত হচ্ছে। ভাষা দিবসের সেই পথ ধরেই আসে ১৯৭১। বাংলাদেশ। মায়ের ভাষা প্রতিষ্ঠার ২১ বছর পর স্বাধীন হয় মাতৃভূমি।,’